আন্দোলনের মাধ্যমে ফ্যাসিবাদী সরকারকে বিদায় করতে হবে

0
24
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : দুর্নীতি, রিজার্ভ সংকট, বিদ্যুৎ বিভ্রাট, নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি ও অস্বাভাবিক হারে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির সরকারি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ সিভিল রাইটস সোসাইটি। মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচি পালন করে সংগঠনের ঢাকা মহানগর ইউনিট।
বাংলাদেশ সিভিল রাইটস্ সোসাইটি, ঢাকা মহানগর ইউনিট’র সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক এস এম তাজুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক শওকত মাহমুদ।
জ্বালানি তেলের নতুন দাম প্রত্যাহারের দাবিতে বক্তারা বলেন, আগাম ঘোষণা ছাড়াই রাতের আধারে এ সিদ্ধান্ত নেয়ার উদ্দেশ্য সাধারণ মানুষ জানতে চায়। অবিলম্বে জ্বালানি তেলের নতুন মূল্য প্রত্যাহার না করলে জনগণ রাস্তায় নেমে আসতে বাধ্য হবে। একদিকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধগতিতে নাভিশ্বাস, একইভাবে বাড়ানো হয়েছে ভোজ্য তেলের দাম। নিত্যপণ্যের দাম, গ্যাসের দাম, ভোজ্য তেলের দাম, ওষুধের দাম, পানির দাম, সবশেষ জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়ে সরকার শুধু সাধারণ মানুষকে বিপদে ফেলেছে। অথচ সরকারের মন্ত্রী, এমপি আমলারা দুর্নীতি ও লুটপাটের মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শওকত মাহমুদ বলেন, আজ জনগণের ঐক্য দরকার। ঈমানী শপথ নিতে হবে, আমাদের ঈমান ঠিক আছে, কিন্তু নিস্ক্রিয় ঈমান দিয়ে এই সরকারের পতন ঘটানো যাবে না। এই সরকারের পতন ঘটাতে হলে সক্রিয় ঈমান নিয়ে মাঠে নামতে হবে। শহিদী মৃত্যুকে ভয় করলে চলবে না। মৃত্যু ও রক্তপাতের মধ্যদিয়ে এই সরকারের পতন ঘটাতে হবে। এখনই সরকারের খারাপ সময়, তাই আসুন এই মুহুর্তে ফ্যাসিবাদী সরকারের বিদায় ঘটাতে হলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আমরা সরকারকে আর সময় দিতে পারবো না।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএফইউজে’র সভাপতি এম আবদুল্লাহ বলেন, ২০০৬ সালে যে চালের দাম ছিলো ১৬ টাকা, আজ সেই চালের দাম ৮০ টাকা। ২০০৬ সালে যে বিদ্যুতের ইউনিট ছিল ২ টাকা, আজ সেই বিদ্যুতের ইউনিট ৮ টাকা। অর্থাৎ এই সরকারকে আর সময় দেয়া যাবে না, দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে তার পতন ঘটাতে হবে। সরকারের মন্ত্রী, এমপি দুর্নীতির মাধ্যমে বিদেশে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করছে। আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে হটিয়ে পাচারকৃত টাকা দেশে ফেরত আনতে হবে।
সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, নুরুল বিএফইউজের মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন, বিএফইউজের সহ-সভাপতি রাশেদুল ইসলাম, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) সহ-সভাপতি ইঞ্জিঃ রাশেদ প্রধান, বাংলাদেশ সিভিল রাইটস্ সোসাইটি চেয়ারম্যান, জাকির হোসেন, সংগঠনের আইন বিষয়ক পরিচালক দিদারুল আলম দিদার, জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মের সভাপতি কালাম ফয়েজী, সিনিয়র সাবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী এ কে এম ওয়াজেদ আলী, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আজিজা সুলতানা, বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, সিপিআর’র সভাপতি কাজী কবির হোসেন টিটু, সংগঠনের সহকারী পরিচালক মেহেরাব হোসেন অভি, ইঞ্জিনিয়ার কামাল হোসেন, কাজী আবির আসলাম প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here