আ.লীগ বসে মাইর খাবে না, হাত ভেঙে দিতে হবে: শেখ হাসিনা

0
24
728×90 Banner

ডেস্ক রিপোর্ট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, বহু মার খেয়েছি, আর নয়। যে হাত মারতে আসবে, সে হাত ভেঙে দিতে হবে। যে হাত আগুন দিতে আসবে, সেই হাত আগুনে পুড়িয়ে দিতে হবে। আর সহ্য করা হবে না। আমাদের নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে হবে।
আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সঙ্গে নগর ও সহযোগী সংগঠনের যৌথসভায় গণভবন থেকে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন। বিএনপির ১০ ডিসেম্বরের গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে এই যৌথসভার আয়োজন করা হয়।
এসময় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ প্রান্তে যৌথসভায় উপস্থিতি ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, কামরুল ইসলাম,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, ড. হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, এসএম কামাল হোসেন, আফজাল হোসেন,
দপ্তরসম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর, দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।
বিএনপির অত্যাচার নির্যাতনের কথা দেশবাসীকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপির আমলে অত্যাচারিত হয়নি, লাঠির বাড়ি খায়নি আওয়ামী লীগের এমন একজন নেতাও নেই। এমনকি চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের জনসভায় গুলি করা হয়েছিল। যে পুলিশ জনসভায় গুলি করেছিল খালেদা জিয়া তাকেই পুলিশের আইজিপি করেছিল।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না। কিন্তু নারী নিযার্তন থেকে শুরু করে এমন কোনো কাজ নেই যে তারা (বিএনপি) না করছে। ৯৬ এর পরে ২০১৩, ১৪ ও ১৫ সালে বিএনপির আবারও সন্ত্রাসী করেছিল। সেই কথা ভুলে গেলে চলবে না।
‘বিএনপি হলো শূন্য লতার মতো, যেই গাছে যায় সেই গাছই খেয়ে ফেলে। আর কোনো ফল ধরে না। বিএনপি বাংলাদেশের মানুষের জন্য কোনো ভালো করতে পারেনি’—যোগ করেন শেখ হাসিনা।
আওয়ামী লীগ সরকার বাংলাদেশের মানুষের সেবক জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগেই দেশের মানুষের জন্য কাজ করে। আমরা মানুষের সেবক হয়ে করতে দিনরাত পরিশ্রম করেছি। দেশের মানুষের সেবার জন্য কাজের বুয়া সেজে করতে হয়। দেশের মানুষের জন্য এমন মনমানসিকতা বিএনপির নেই। বিএনপি দেশের মধ্যে লুটপাট করতে এসেছিল। আর আওয়ামী লীগ দেশের মানুষকে দিতে এসেছে।
শেখ হাসিনা বলেন, জামায়াতকে নিয়ে বিএনপি আবার ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশ পিছিয়ে যাবে। দেশের আর উন্নয়ন হবে না। দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলবে। আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে দেবে না। কেউ বিশৃঙ্খলা করে আওয়ামী লীগ বসে থাকবে না।
বিএনপির সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি আবারও বিশৃঙ্খলা, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড শুরু করেছে। রাস্তায় পুলিশের ওপর হামলা করছে। চালডাল দিয়ে খিচুড়ি রান্না করে খেয়ে পুলিশের ওপর হামলা করে সরকার পতন করা যাবে না। সরকার পতন করা এতে সহজ কাজ নয়। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করা হলে আওয়ামী লীগ বসে থাকবে না।
কয়েকটি মামলায় দণ্ড নিয়ে প্রায় দেড় দশক ধরে সপরিবারে লন্ডনে থাকা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনতে ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে বলে জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি।
বলেন, ‘তারেক জিয়াকে বাংলাদেশ ফিরিয়ে আনতে ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে। কীভাবে তাকে ফিরিয়ে আনা যায় সেই চেষ্টা আমরা করব। তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে সাজা বাস্তবায়ন করব।’

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here