উত্তরায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলা

0
21
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: রাজধানী উত্তরায় ১০নং সেক্টর এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের তুরাগ থানা সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ নুরুকে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গত ৩১ মার্চ দুপুর আড়াইটায় সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন। এব্যাপারে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।
আহত নরু ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ১০নং সেক্টরে ২১নং রোডে ৮/১০জন সন্ত্রাসীদল মোটরসাইকেলযোগে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে নুরুর উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তার মাথায় আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসীদের পড়ে থাকা একটি মানিব্যাগ উদ্ধার করা হয়। মানিব্যাগের ভিতর মাহবুব আল হাসান (বাবু) নামে একটি ন্যাশনাল আইডি কার্ড পাওয়া যায় এবং তেপান্তর ডেভলপারস লিমিটেড কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চেয়ারম্যান এর দুটি ভিজিটিং কার্ড পাওয়া যায়।
উল্লেখ্য, গত ২৬ শে মার্চ মোঃ ফরিদ ৫৪ নং ওয়ার্ড কৃষক লীগের সভাপতি মো: নাসির উদ্দীনকে বলেছিলো তিনি তেপান্তর ডেভলপারস লিমিটেড কোম্পানীর ১০ নং সেক্টর ২১ রোডে অবস্থিত প্রোজেক্টের ল্যান্ড ওনারের কাছ থেকে তিনটি ফ্ল্যাট ভবনের কাজ চলাকালীন অবস্থায় ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা মুল্যে ক্রয় করেন। নগদ ৮০ লাখ টাকা পরিশোধ করে বাকী টাকা দিয়ে অবশিষ্ট কাজ নিজ দায়িত্বে করিয়ে নিবেন বলে পাওয়ার রেজিস্ট্রি করে নেন। কিন্তু তেপান্তর ডেভলপারস কোম্পানী লিমিটেড প্রতারণা করে বেশি মুল্য ফ্ল্যাটগুলো অন্যত্রে বিক্রি করে দেয়।
ক্রয়কৃত ফ্ল্যাট মালিক ফরিদ বলেন, আমি কোম্পানীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তেপান্তর ডেভলাপারস কোম্পানী আমাকে ৩০ লাখ টাকা দিয়েছে। বাকি টাকা পরিশোধ করতে টাল-বাহানা শুরু করে।
এদিকে দ্বিতীয় পক্ষের ক্রেতা কাজ শুরু করলে, ফ্ল্যাট মালিক ফরিদ উত্তরা পশ্চিম থানায় জানালে পুলিশ এসে কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু পুলিশ চলে যাওয়ার পর পুনরায় তারা কাজ শুরু করেন। খবর পেয়ে নাসির নুরুকে ঘটনাস্থলে পাঠান। নুরুর উপস্থিত হলে কোম্পানীর লোকজন নুরুকে গালাগালি শুরু করে এবং নুরুর গায়ে কিল গুষি লাথি মারতে থাকে। এ খবর নাসির জানতে পারলে দ্রæত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এই অবস্থা দেখে কোম্পানীর লোকজনকে বুঝিয়ে তাদের কাজ বন্ধ রাখার অনুরোধ জানান এবং আইনী ফয়সালা না হওয়া পর্যন্ত কাজ বন্ধ রাখার কথা বলে চলে যান। এই ঘটনার জের ধরেই গত ৩১ শে মার্চ নুরুর উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে বলে স্থানীয়দের ধারনা। এ ঘটনার ৭দিন পেরিয়ে গেলেও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তারা উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দ্রæত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওয়াতায় আনার জোর দাবী জানান এলাকাবাসী। তেপান্তর ডেভলপারস কোম্পানী লিমিটেড এর প্রতারনার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen − 4 =