গাজীপুরের বাসন থানা পুলিশ হেফাজতে ব্যবসায়ীর মৃত্যুর অভিযোগ

0
32
728×90 Banner

অলিদুর রহমান অলি, গাজীপুর: গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানায় মঙ্গলবার রাতে পুলিশ হেফাজতে থাকা মো. রবিউল ইসলাম (৩৮) নামে একজন সুতা ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানার শাহাদাতপুর গ্রামের মো.বাকি মন্ডলের ছেলে। এদিকে পুলিশ হেফাজতে রবিউলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বুধবার সকালে ভোগড়া পেয়ারা বাগান এলাকায় টাঙ্গাইল-ঢাকা ও চট্রগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে স্থানীয় জনতা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বিক্ষোভকারীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দিতে গেলে স্থানীয়দের সাথে পুলিশের দাওয়া পাল্টা দাওয়া ও ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় উত্তেজিত জনতা ভোগড়া বাইপাস এলাকায় ট্রাফিক পুলিশ বক্সে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও একটি মোটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে জিএমপির বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
নিহতের স্বজনরা জানান, রবিউল ইসলাম দীর্ঘ প্রায় ১৭ বছর ধরে ভোগড়া পেয়ারা বাগান এলাকায় স্বপরিবারে ভাড়ায় থেকে এখানে সুতার ব্যবসা করতেন। অনলাইনে জুয়া খেলার মিথ্যা অভিযোগে বাসন থানার এএসআই মাহবুবুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্সসহ ভাড়াটিয়া বাসা থেকে তাকে শনিবার রাতে তুলে নিয়ে যায়। পরে থানায় গেলে একই অভিযোগে আরো ৩জন আটক আছে আমরা দেখতে পাই। ওই তিনজনকে মোটা অংকের লেনদেনে থানা থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। অথচ রবিউলকে ছেড়ে দেওয়ার কথা বলে আমাদের কাছ থেকে নগদ ৮৫ হাজার টাকা নিয়েও পুলিশের দাবিকৃত ৫ লাখ টাকা না পেয়ে থানায় ৪ দিন আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে রবিউলকে মেরে ফেলা হয়েছে। অপরদিকে পুলিশ মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে রবিউলকে ছেড়ে দেওয়ার কথা বলে তার স্ত্রীর কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বক্ষর নেওয়ার এমন অভিযোগও করেন তারা। সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে রবিউল হত্যায় জড়িতের বিচার দাবি স্বজনদের।
এব্যাপারে জিএমপির অপরাধ উত্তর বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার মো. ইলতুৎমিশ বলেন, আমরা ঘটনার বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করে দেখছি। তদন্তে সত্যতা পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here