গার্মেন্টস শ্রমিকদের ঢালাও ভাবে ছাটাই, গ্রেফতার বন্ধের দাবী

0
217
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: গার্মেন্টস শ্রমিকদের মজুরীর আন্দোলনকে কেন্দ্র করে ঢালাও ভাবে শ্রমিক ছাটাই, গ্রেফতার এবং গনহারে মামলায় হয়রানী বন্ধ করার দাবী জানান আইবিসি।
আজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গার্মেন্টস শ্রমিকদের মজুরীর আন্দোলনকে কেন্দ্র করে ঢালাও ভাবে শ্রমিক ছাটাই এবং গ্রেফতারসহ শ্রমিকদেরকে মামলায় গনহারে আসামী করে হয়রানী বন্ধ করার দাবী জানান ইন্ডাষ্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিল-আইবিসি। আইবিসির চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন আহমেদ এবং মহাসচিব সালাউদ্দিন স্বপন এক যুক্ত বিবৃতিতে এই দাবী জনান।
বিবৃতিতে বলা হয় গার্মেন্টস শিল্পের ঘোষিত নিম্নতম মজুরী কাঠামো নিয়ে ১০ ডিসেম্বরের ২০১৮ থেকে ১৩ জানুয়ারী ২০১৯ পর্যন্ত পোষাক শিল্পে শ্রম অসন্তোষ দেখা দেয়। উহা সমাধানে গঠিত ত্রিপক্ষীয় কমিটির গত ১৩ জানুয়ারীর সর্বশেষ সভায় সরকার এবং মালিকপক্ষ কোন নিরপরাধ শ্রমিক চাকুরী হারাবে না এবং মামলায় হয়রানী করা হবে না বলে অঙ্গীকার করেন। কিন্ত বাস্তবে এই অঙ্গীকার একটি প্রহসনে রূপ নিয়েছে।
বিবৃতিতে আরো বলা হয় বৃহত্বর গাজীপুর জেলা ও আশুলিয়া সাভার এলাকায় এ পর্যন্ত বিভিন্ন থানায় শ্রমিকদের নামে ৩০ টির উপরে মামলা হয়েছে। এ সকল মামলায় প্রায় ৩৫০০ শ্রমিককে আসামী করা হয়েছে এবং এ পর্যন্ত শতাধিক শ্রমিক গ্রেফতারের শিকার হয়েছেন। প্রায় ৭ হাজারের বেশী শ্রমিককে চাকুরী চ্যুত করা হয়েছে। বর্তমান মামলার সংখা, গ্রেফতারের সংখা এবং শ্রমিক ছাটাইয়ের সংখা অতীতের সকল রেকর্ডকে ছাড়িয়ে গেছে। যে সকল মালিকগন মামলা করছেন তাহাদের পধান টার্গেটই হচ্ছে কোন কোন শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কার্যক্রমের সাথে যুক্ত আছেন বা ছিলেন এবং অতীতে শ্রম অধিকার নিয়ে যে সকল শ্রকিরা কারখানার অভ্যন্তরে সোচ্চার ছিলেন তাহারাই প্রথমে মামলার আসামী ও ছাটাইয়ের শিকার হচ্ছেন যাহা খুবই উদ্বেগ জনক।
বিবৃতিতে অভিলম্বে নিরপরাধ শ্রমিকদেরকে ছাটাই বন্ধ করাসহ মামলা দিয়ে শ্রমিকদেরকে হয়রানী বন্ধ করার জন্য মালিকদের প্রতি দাবী জানান এবং একই সঙ্গে চলমান হয়রানী মুলক কর্মকান্ড বন্ধ করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করিতে সরকারের প্রতিও দাবী জনানো হয়। আইবিসি এ বিষয়ে শ্রমিকদের সাথে মালিকদেরকে দায়িত্বশীল আচরণ করার আহবান জানান।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here