জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলামের এক নারী সদস্যসহ ৪ জন গ্রেফতার

0
93
728×90 Banner

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : রাজধানীর পল্টন, ভাটারা থানা এবং শেরপুর জেলা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’ এর এক নারী সদস্যসহ ৪ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৪)।
এ সময় তাদের কাছ থেকে ১১টি উগ্রবাদী বই, ২১টি লিফলেট, ১৬৭টি জঙ্গিবাদী কথোকথনের প্রমাণাদি জব্দ করা হয়।
রোববার দিবাগত রাত ১২টার থেকে অভিযান শুরু হয়ে আজ সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত র‌্যাব সদস্যরা পল্টন, ভাটারা ও শেরপুরে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে।
র‌্যাব-৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া অফিসার) মোঃ জিয়াউর রহমান চৌধুরী আজ সোমবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, গ্রেফতারকৃত জঙ্গিরা হলো, মো. আব্দুল ওহাব ওরফে সিরাতুল মুস্তাকিম ওরফে হামজা বিন মুতালিব (৩০), জেলা কুস্টিয়া, মো. বেলাল হোসাইন ওরফে খোরশানের মুজাহিদ খোরশানের কালো পতাকা বাহিনী (২২), জেলা গোপালগঞ্জ, মো. নাজমুল (১৭), মোছা. ঝুমুর খাতুন ওরফে রোকাইয়া ও হাজ্জাজ বিন মুতালিব (১৮),জেলা-কুস্টিয়া।
র‌্যাব জানায়, গত ২৩ জানুয়ারি র‌্যাব-৪ কর্তৃক গ্রেফতারকৃত ‘আনসার আল-ইসলাম’ এর ৫ সদস্য থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ৩১ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১২টার থেকে আজ সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানীর পল্টন, ভাটারা থানাসহ শেরপুর জেলায় অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’ এর এক নারীসহ ৪ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’ এর সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছে এবং তাদের নিকট থেকে ‘আনসার আল ইসলাম’ এর বিভিন্ন ধরনের ১১টি উগ্রবাদী বই, ২১টি লিফলেট, ১৬৭টি জঙ্গিবাদী কথোকথনের প্রমাণাদি জব্দ করা হয়।
হামজা বিন মুতালিবকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাব জানতে পেরেছে, সে একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা সম্পন্ন করে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে পরবর্তীতে দেশে ফিরে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। এছাড়াও ‘আনসার আল ইসলাম’ এর সক্রিয় সদস্য হিসেবে সে আনসার আল ইসলাম’ এর সদস্যদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ স্থাপনের পাশাপাশি অন্যদের উদ্বুদ্ধ করার জন্যে অনলাইনে বিভিন্ন উগ্রবাদী মতবাদ প্রচার করে আসছিলো।
মো. বেলাল হোসাইন, খোরশানের মুজাহিদ, খোরশানের কালো পতাকা বাহিনীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‌্যাব জানতে পেরেছে, তিনি পল্টনে একটি বেসরকারি চাকরি করে এবং বেশ কিছুদিন যাবৎ ‘আনসার আল ইসলাম’ এর সাথে জড়িত থেকে তাদের নিজস্ব ইলেকট্রনিক গ্রুপে ও অনলাইনে বিভিন্ন উগ্রবাদী লেখালেখি, ভিডিও এবং লিফলেট প্রচার করে আসছিলো।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত মো: নাজমুল জানান, সে শেরপুরের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক।
র‌্যাব-৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার আরও জানান, ধৃত গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা বেশ কিছুদিন যাবত ‘আনসার আল ইসলাম’ এর সাথে জড়িত থেকে অন্যান্যদের সাথে গোপন বৈঠকের পাশাপাশি চাঁদা ও নতুন সদস্য সংগ্রহ করে আসছিলো।
মোছা. ঝুমুর খাতুন, ওরফে রোকাইয়া ও হাজ্জাজ বিন মুতালিবকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান, সে পেশায় একজন ছাত্রী এবং ‘আনসার আল ইসলাম’ এর সাথে জড়িত থেকে অন্যান্যদের সাথে গোপন বৈঠকের পাশাপাশি চাঁদা ও নতুন সদস্য সংগ্রহ করে আসছিলো।
এছাড়াও সে পরিবারের সদস্যদের থেকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে ৫ মাস আগে মো. আব্দুল ওহাব এর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে মধ্যপ্রাচ্যে যাবার পরিকল্পনা করছিলো।
এবিষয়ে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here