টঙ্গীতে বাসা থেকে ডেকে যুবককে খুন

0
32
728×90 Banner

জাহাঙ্গীর আকন্দ : পূর্ব শক্রতার জেরধরে টঙ্গীর এরশাদ নগরের নিজ বাসা থেকে ডেকে নিয়ে আশিক(২২) নামে এক যুবককে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে। এঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে শনিবার মধ্যরাতের পর থেকে রোববার সকাল পর্যন্ত ৯ জনকে থানায় আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।
খুন হওয়া ওই যুবক এরশাদনগরের ৩নং ব্লকের জনৈক সোলাইমান হোসেন সেলু মিয়ার ছেলে।
জানা যায়, আশিক হোসেন স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতো। তার সাথে বেশ কিছু দিন আগে আশরাফুল নামে এক যুবকের মতবিরোধ ঘটে। বিষয়টি স্থানীয়রা মীমাংসা করে দেয়। গত শনিবার রাতে আশিক ও তার বন্ধুরা বিশ্বকাপ খেলা দেখার প্রস্তুতি নেয়। এসময় আশরাফুলের মুঠোফোন থেকে একটি কল আসে আশিকের ফোনে। ফোনে কথপোকথনে আশিককে জানানো হয় ছিনতাইকারী সন্দেহে এক ব্যাক্তিকে আটক করেছে। তাকে শনাক্ত করতে আশিককে এলাকা নিকট বর্তি নীলাচল হাউজিং সোসাইটির প্রকল্প এলাকায় যেতে বলা হয়। সে পৌছানোর অল্পসময় পর মারধর ও ডাক চিৎকারের শব্দ পেয়ে আশিকের পরিবারের সদস্যরা ও এলাকার লোকজন ঘটনাস্থলে যান। তাদের দেখে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে টুটুল, বিল্লাল ও সাব্বির নামে তিন যুবককে আহত করে। খবর পেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানার পুলিশের একটি দল গুরুতর আহত অবস্থায় আশিকসহ উল্ল্যেখিত তিন যুবককে উদ্ধার করে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। শনিবার রাত পৌণে ১২টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক আশিককে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে হাসপাতালে নিহতের বন্ধু ও স্বজনরা লাশ দেখতে আসলে একটি পক্ষ তাদেরকে বেধড়ক মারধর ও হাসপাতালে জরুরি বিভাগের জানালার গ্লাস ও মূল্যবান আসবাবপত্র ভাংচুর করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। পরে ঘটনাস্থল থেকে সন্দেহভাজন ৯ যুবককে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
এঘটনায় টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ আশরাফুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এবিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। কি কারনে এঘটনা ঘটেছে তা তদন্তের পর জানা যাবে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৯ যুবককে আটক করেছি। ময়না তদন্তের জন্য লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here