টঙ্গীতে বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ ভূঁইয়ার ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

0
160
728×90 Banner

নাসির উদ্দীন বুলবুল: টঙ্গীতে বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ ভূঁইয়ার ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। আজ শনিবার বিকেলে আই আর আই মিলনায়তনে মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া মেমোরিয়াল ট্রাস্টের সভাপতি বেগম শামসুন নাহার ভূঁইয়া এমপি’র সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. মো: আজমত উল্লা খান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ট্রাস্টের সাধারণ সম্পাদক মো: শহীদ উল্লাহ, ডাক্তার জালাল আহমেদ, মোস্তফা হুমায়ুন হিমু, বীরমুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, মো: রজব আলী, গাজীপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আতাউর রহমান,দৈনিক গণমুখের সম্পাদক আমজাদ হোসেন, টঙ্গী প্রেসক্লাবের সভাপতি এম এ হায়দার সরকার, কাউন্সিলর হামিদা বেগম, ওসমান আলী, এ্যাড. হেলাল উদ্দিন, শেকানুল ইসলাম শাহী, সাবেক কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম,কাজী সেলিম, এম এম নাছির, মহিলা শ্রমিকলীগ টঙ্গী শাখার সাধারণ সম্পাদক হ্যাপী বেগম,হেলাল মাস্টার প্রমুখ।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে এড. মো: আজমত উল্লা খান বলেন, বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া একজন অসাধারণ মানুষ ছিলেন,তিনি ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকাসহ মুক্তিযুদ্ধের একজন সাহসী যোদ্ধা হয়ে সরাসরি যুদ্ধ করেছেন। টঙ্গীতে রশিদ ভূঁইয়াই একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা। যিনি ২৫ শে মার্চের গণহত্যার মধ্য দিয়ে সূচনা হওয়া মহান মুক্তিযুদ্ধের গেরিলাবাহিনীর অগ্রণী বিশেষ টিম ক্র্যাক প্লাটুনের সদস্য হিসেবে মেজর হায়দারের তত্বাবধানে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। পরে এপ্রিল মাসে ঢাকায় ফিরে আসনে এবং সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন ধ্বংসের অপারেশনে অংশগ্রহণ করে। বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া ১৯৪৭ সালের পহেলা জানুয়ারী গাজীপুর জেলার টঙ্গী থানাধীন নোয়াগাঁও গ্রামে এক সভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। গত ৮ নভেম্বর ২০১৩ নিরহংকারী সদালাপী বিপ্লবী চেতনার মহান এই ব্যক্তিত্ব ৬৭ বছর বয়সে দুরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।
এড. আজমত উল্লা খান আরো বলেন, একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া ছিলেন প্রকৃত দেশপ্রেমিক। তিনি একজন নিষ্ঠাবান নেতা। একজন আদর্শবান রাজনীতিক, সাহসী শ্রমিক সংগঠক, অকুতভয় একজন সাহসী মুক্তিযোদ্ধাও ছিলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং একজন প্রকৃত নি:স্বার্থ সমাজসেবী হিসেবে রশিদ ভূঁইয়া আমৃত্যু গণমানুষের পাশে ছিলেন।
অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ করে টঙ্গী প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.এ হায়দার সরকার বলেন, বীরমুক্তিযুদ্ধা আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া ছিলেন নিখাঁদ নিরেট আপোষহীন আদর্শবান একজন রাজনীতিবিদ। সকল লোভ লালসাকে তিনি জয় করে গণমানুষের নেতায় পরিণত হয়েছিলেন। পরে মরহুম আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া ও শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জাতীয় নেতাদের জন্য দোয়া করা হয়। এছাড়াও মন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল ও তার সহধর্মীনি খাদিজা রাসেল এর সুস্বাস্থ্য কামনায় দোয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here