টঙ্গীতে যুবলীগ নেতা আজিজের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড লাঞ্ছিত মাওলানা

0
26
কাজী আরমান
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: গাজীপুরের টঙ্গী পূর্ব থানাধীন ৫০নং ওয়ার্ড শালিকচুড়া ঢাকা ময়নমসিংহ মহাসড়কের পাশের্^ কাজী অফিসে গত বৃহস্পতিবার মাওলানা মো: নাসির উদ্দিনের উপর সন্ত্রাসী কায়দায় আজিজ ও তার বাহিনী নিয়ে অতর্কিতভাবে লাঞ্ছিত করে ও পাশর্^বর্তী আখি ডিজিটাল স্টুডিওতে তান্ডব চালায়। এ সময় স্টুডিওর মালিক নুর মোহাম্মদ আলম আঘাতপ্রাপ্ত হয়। এই ঘটনায় মাওলানা মো: নাসির উদ্দিন গণমাধ্যম কর্মীদেরকে অভিযোগ করে বলেন, আমি সরকারি নিকাহ রেজিষ্ট্রার প্রতিষ্ঠানে দীর্ঘদিন সুনামের সাথে দায়িত্বপ্রাপ্ত এলাকা ৫০নং ওয়ার্ডে কাজ করে আসছি। আমার পাশর্^বর্তী ৪৯নং ওয়ার্ড নিকাহ রেজিষ্ট্রার কাজী আরমান হোসাইন অবৈধ ও বেআইনিভাবে আমার নির্ধারিত এলাকার ভিতর অফিস চালু করে বিবাহ ও তালাক রেজিষ্ট্রার এর কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এ বিষয়ে আমি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও আমাদের জেলা রেজিষ্ট্রারের মাধ্যমে কাজী আরমানকে অফিস সরিয়ে নেয়ার জন্য অবগত করেছিলাম। সে কোন কর্ণপাত না করে ঘটনার দিন আমার নির্ধারিত এলাকার একটি বিবাহ অনুষ্ঠানে লোকমারফত আমন্ত্রণ জানাইয়া আসতে বলে। আমি তার অফিসে এসে বার বার তার মুঠোফোনে ফোন দিতে থাকি। সে উক্ত ফোন সংযোগ স্থাপন করেনি। ইতিমধ্যে ৫০নং ওয়ার্ডের সাবেক যুবলীগ নেতা আজিজ ও তার সহযোগীসহ ১৫/২০জন কাজী অফিসে প্রবেশ করে আমাকে ব্যাপক লাঞ্ছিত করে। এই ঘটনায় আমার অত্যান্ত সম্মান ক্ষুন্ন হয়েছে। আমি জেলা রেজিষ্ট্রারকে এ বিষয়ে অবগত করেছি। পরিবারের লোকজন ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে আলোচনা করে পর্যায়ক্রমে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অপেক্ষামান রয়েছি। এ বিষয়ে যুবলীগ নেতা আজিজের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার বিষয়ে অস্বীকার করেন। এ ঘটনায় ৫০নং ওয়ার্ড কাজী আরমান হোসাইনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কাজী নাসির উদ্দিন আমার শিক্ষাগুরু। তার সাথে আজিজ যেই ঘটনা ঘটিয়েছে তা অত্যন্ত নিন্দনীয় ও লজ্জাকর। অফিসের বৈধতার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি ৩ মাস সময় নিয়েছি অফিস অন্য স্থানে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় এলাকায় অনেকের সাথে আলোচনা করে জানা যায়, কাজী আরমান বেআইনিভাবে বাল্যবিবাহ নিকাহ রেজিষ্ট্রিার কার্য সম্পাদন করে থাকেন এবং নিজেকে মুফতী বলে পরিচয় দিয়ে থাকেন। এ বিষয়ে শিক্ষা সনদের বিষয়টি সন্দেয়াতীত।
সরেজমিনে আরো জানা যায় যে, যুবলীগ নেতা আজিজ ইতিপূর্বে ক্ষমতার অপব্যবহার করে তার ভাড়াটিয়াসহ অনেককে মারধর, লাঞ্ছিত ও অপমানের মতো ঘটনা প্রায়ই ঘটিয়ে থাকেন। এছাড়াও সে নিজেকে সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী দাবী করেন। এই ধরনের হীনমানুষিকতার লোক জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হলে এলাকার সাধারণ লোক বিচার পাওয়া অনেকটা কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়বে বলে এমনটাই জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here