ডিআরইউতে দিনব্যাপি বর্ণাঢ্য আয়োজনেবিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস উদযাপিত

0
21
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : কেবল রোগ ও দূর্বলতার অনুপস্থিতি নয় শারীরিক, মানসিক পারিবারিক ও সামাজিকভাবে ভালো থাকার নামই সূস্থতা। বিশ^ব্যাপী প্রায় ১ বিলিয়ন মানুষ কোনো না কোনো মানসিক রোগে ভুগছে, ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ মানুষের মানসিক স্বাস্থ্য জনিত সমস্যা অনিরুপিত রয়েছে। প্রতি এক লাখে একজনেরও কম মানসিক স্বাস্থ্যকর্মীরয়েছে। বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষ্যে রাজধানীর সেগুনবাগীচাস্থ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআর ইউ)-এ ১৯ অক্টোবর, বুধবার আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব তথ্য জানান।
বিশ্বজুড়ে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি ও মানসিক স্বাস্থ্যের সমর্থন প্রচেষ্টাকে একত্রিত করার লক্ষ্য নিয়ে প্রতিবছর ১০ অক্টোবর বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস পালন করা হয়। সকাল ১০টা থেকে দিনব্যপী ইনার হুইল ক্লাব অফ ঢাকা নর্থওয়েস্ট ও আত্মহত্যা প্রতিরোধমূলক সংগঠন ‘ব্রাইটার টুমরো ফাউন্ডেশন (বিটিএফ)’-এর যৌথ উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ও শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আলোচনা শেষে শিশু ও কিশোরদের হাতে সার্টিফিকেট ও বিশ^ মানসিক স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্য লেখা মগ তুলে দেন উপস্থিত সুধীবৃন্দ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. বিধান রঞ্জন রায় পোদ্দার, অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস)-এর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক আনিসুর রহমান ও ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক আশিষ কুমার চক্রবর্তী। অনুষ্ঠানে মানসিক স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্য ভিত্তিক মূখ্য আলোচক হিসেবে কী নোট প্রেজেন্টেশনে থাকবেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ডা. ফারজানা রহমান দীনা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন ইনার হুইল ক্লাব অব ঢাকা নর্থ ওয়েস্টের সভাপতি সারাহ সালাহউদ্দিন।
অনুষ্ঠানের অন্যতম আয়োজক ব্রাইটার টুমরো ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জয়শ্রী জামান ও বিভিন্ন অঙ্গনের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত থেকে বক্তৃতা দিবেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন ইনার হুইল ক্লাব অব ঢাকা নর্থ ওয়েস্টেও সাবেক প্রেসিডেন্ট মিসেস সাজেদা আখতার।
অনুষ্ঠানের মুখ্য বক্তা ডা. ফারজানা রহমান দীনা তার কি নোট প্রেজেন্টেশনে মানসিক স্বাস্থ্যেও বৈশি^ক ও বাংলাদেশ প্রেক্ষিত তুলে ধরেন।
কোভিড-১৯ মহামারীটি আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলেছে ও অব্যাহত রেখেছে। স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী মানসিক চাপকে বাড়িয়েছে এবং লক্ষ লক্ষ মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যকে ক্ষুন্ন করেছে। মহামারীর প্রথম বছরে উদ্বেগ এবং হতাশাজনক ব্যাধি উভয়ের বৃদ্ধি ২৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সময়ে, মানসিক স্বাস্থ্য পরিষেবা গুলি মারাত্মকভাবে ব্যাহত হয়েছে এবং মানসিক স্বাস্থ্যের অবস্থার জন্য চিকিৎ্সার ফাঁক প্রশস্ত হয়েছে।
”সকলের জন্য মানসিক স্বাস্থ্য ও সুস্থতাকে বিশ্বব্যাপী অগ্রাধিকার দিন”-প্রতিপাদ্য নিয়ে বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস ২০২২-এর মাধ্যমে আমাদের পুনরায় সংযোগ করার ক্ষমতা মানসিক স্বাস্থ্য রক্ষা এবং উন্নত করায় আমাদের প্রচেষ্টাকে পুনরায় জাগিয়ে তোলার সুযোগ দেবে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here