দ্বিতীয় ধাপে বিশ্ব ইজতেমা শুরু

0
17
728×90 Banner

মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ কান্দলভির ইমামতিতে জুমার জামাত অনুষ্ঠিত

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক : শুক্রবার বাদ ফজর পাকিস্থানের তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বী মাওলানা ওসমানের আ’ম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে নিজামুদ্দিন মারকাজ আয়োজিত ৫৬তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। শুক্রবার ইজতেমা ময়দানে লাখো মুসল্লির অংশ গ্রহনে বৃহত্তর জুমার জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এ জুমার নামাজে ইমামতি করেন দিল্লি নিজামুদ্দিন মারকাজের মাওলানা সাদ কান্দলভির বড় ছেলে মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ কান্দলভি। বাদ জুমা সংক্ষিপ্ত বয়ান করেন তাবলিগ জামাতের (একাংশ) স্বাগতিক বাংলাদেশের মুরব্বি ওয়াসিফুল ইসলাম। শুক্রবার বাদ আসর বয়ান করেন মাওলানা সাদ কান্দলভির ছেলে মাওলানা সাঈদ বিন সাদ কান্দলভী ও মাগরিবের পর বয়ান করেন মাওলানা ইউসুফ বিন সাদ কান্দলভী। এছাড়া সকাল ১০টায় বয়ান করেন দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের মাওলানা ইউসুফ।
শুক্রবার জুমার জামাতকে কেন্দ্র করে ইজতেমা ময়দান ও আশপাশের এলাকা বিশাল জনসমুদ্রে পরিণত হয়। ইজতেমায় অংশগ্রহণকারী লাখ লাখ মুসল্লি ছাড়াও রাজধানীসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার হাজার হাজার মুসল্লি এ বৃহত্তম জুমার জামাতে শরিক হন। ইজতেমার এ পর্বে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত ৫৮টি দেশের ৪ হাজার ৭৯১ জন মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। তাদের মধ্যে ইংরেজি খিমায় (তাবু) ২৬৫১ জন, ঊর্দু খিমায় ৯৮৪ জন, আরবি খিমায় ৩৩৩৫ জন ও বাংলা খিমায় ৮২১ জন অবস্থান করছেন। কুটনৈতিক বিধি নিষেধ সত্বেও এবারই প্রথম ইসরাইলের ৪০ জন মুসল্লি ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন। ফিলিস্থিন থেকেও এসেছেন ৫ জন মুসল্লি। এব্যাপারে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোল্লা নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ইসরায়েল থেকে আগত মুসল্লিরা ময়দানে যোগ দিয়েছেন। তাঁরা ভিন্নভাবে আমাদের দেশে এসেছেন। তাঁদের ফিরিয়ে দেওয়া যাবে না। তাঁরা ধর্মীয় কাজে অংশ নিয়েছেন।’
এদিকে শীতের তীব্রতা কমে যাওয়ায় এবং অনুক‚ল আবহাওয়া ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকায় ইজতেমায় আগত মুসল্লিগণ স্বাচ্ছন্দ্যে তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরুব্বিদের বয়ান শুনছেন এবং ইবাদত বন্দেগীতে মশগুল রয়েছেন।
ভারতের গুজরাট থেকে আগত আহসান উল্লাহ ঠান্ডা জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে বিদেশি খিত্তায় স্থাপিত টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালের অস্থায়ী চিকিৎসাকেন্দ্রে সেবা নিতে এসে বলেন, ‘ময়দানের পাশে চিকিৎসার ব্যবস্থাটি ভালো হয়েছে। চিকিৎসা শেষে ওষুধ পেয়েছি।’
নিরাপত্তা ব্যবস্থা :
গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম শুক্রবার সাংবাদিকদের বলেন, বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের মতো দ্বিতীয় পর্বেও ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আগত মুসল্লিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুরো ইজতেমা ময়দানকে কয়েকটি সেক্টরে ভাগ করে নিরাপত্তা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এ উপলক্ষে ময়দানের আশপাশে ১০হাজার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। ইজতেমাকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রথম পর্বে যেসব নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল এবারও ঠিক আগের মতোই নিরাপত্তা ব্যবস্থা অটুট থাকবে।
ময়দান পরিদর্শনে করে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো: ফরিদুল হক খান এমপি বলেন, সরাকরি ব্যবস্থাপনায় প্রথম পর্বের ন্যায় দ্বিতীয় পর্বও সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আগত দেশ বিদেশী মুসল্লিদের সেবায় কাজ করছে বিভিন্ন দপ্তরের হাজার কর্মকর্তা কর্মচারী। ইনশাআল্লাহ সমফভাবেই শেষ হবে ইজতেমা।
ইজতেমা ময়দানে টু্যুরিস্ট পুলিশের কন্ট্রোলরুমের দায়িত্ব থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হাসান ইকবাল চৌধুরী বলেন, ‘ইজতেমায় আসা বিদেশি মুসল্লিদের জন্য ট্যুরিস্ট সিম কার্ডের কোনো ব্যবস্থা না থাকায় মুসল্লিরা আমাদের কাছে সিম কার্ড চাইছেন। আমরা মুসল্লিদের এ ব্যাপারে কোনো সহযোগিতা করতে পারছি না।’
দ্বিতীয় ধাপে ১ জনের মৃত্যু ঃ ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপে যোগ দিতে এসে বরগুনার মফিজুল ইসলামের (৭৫) মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়। বিশ্ব ইজতেমা দ্বিতীয় ধাপের মিডিয়া সমন্বয়কারী মো. সায়েম জানান, ময়দানে জানাজা শেষে মফিজুলের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
আগামী রোববার দুপুরের আগে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে তাবলিগের নিজামুদ্দিন মারকাজ আয়োজিত এবারের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপের সমাপ্তি ঘটবে।
ইজতেমায় পকেটমারের কবলে শ্রীলঙ্কান নাগরিক ঃ টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে একজন শ্রিলঙ্কান নাগরিকের মোবাইল ফোন খোয়া গেছে। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টায় ময়দানের বিদেশী কামরায় নির্ধারিত দোকান থেকে পণ্য কেনার সময় এ ঘটনা ঘটে। দোকানের সামনে ভীড়ের মধ্যে পকেটমার সুকৌশলে মোবাইল ফোনটি লুটে নেয় বলে তাবলিগ সার্থীরা ধারণা করছেন। এ ঘটনায় টঙ্গী পূর্ব থানায় হারোনো সংক্রান্তে সাধারণ ডায়েরি করেছেন শ্রীলঙ্কান নাগরিক মো. নাদিম। তার খোয়া যাওয়া স্যামসং এস-২২ (আলট্রা) মডেলের মোবাইল সেটটির মূল্য বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় দেড় লাখ টাকা বলে জানান।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে টঙ্গী পূর্ব থানার ডিউটি অফিসার এসআই ফাতেমা জানান, খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে, এটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। পুরো ইজতেমা ময়দান টঙ্গী পশ্চিম থানা এলাকায়। কিন্তু আলোচিত ঘটনায় টঙ্গী পূর্ব থানায় সাধারণ ডায়েরির প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের যাতে কোনো হয়রানির শিকার হতে না হয় সেজন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here