দ্বিতীয় পর্বের আজ আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমা

0
181
728×90 Banner

মো: জাহাঙ্গীর আকন্দ : বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিনে শনিবার বাদ ফজর থেকে মুসল্লির উদ্দেশে আম বয়ান শুরু হয়েছে। পবিত্র কোরআন-হাদিসের আলোকে এ বয়ান চলবে রাত পর্যন্ত। রোববার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। মোনাজাতে শরিক হতে ইজতেমায় দলে দলে মুসল্লিরা আসছেন। এরই মধ্যে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে ইজতেমা ময়দান। রবিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে আখেরী মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে বলে ইজতেমা আয়োজকরা জানান। বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ২০২০ সালের ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা। এর আগে গত ১০ জানুয়ারি ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হয়ে ১২ জানুয়ারি আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। এতে যোগ দেন মাওলানা জুবায়ের অনুসারী মুসল্লিরা। ১৭ জানুয়ারি থেকে দ্বিতীয় পর্বের তিন দিনের ইজতেমায় পরিচালনা করছেন দিল্লীর মাওলানা সা’দ অনুসারীরা।
বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে ৫৯টি দেশ থেকে ৩ হাজার মুসল্লী অংশ নিয়েছেন এবং দেশের ৬৪টি জেলার লাখ লাখ মানুষ অংশ নিচ্ছেন। আখেরি মোনাজাতে মুসল্লির সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।
গতকাল শনিবার বাদ ফজর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা মুরসালিন। তিনি মুসল্লিদের উদ্দেশে বয়ান শেষে বিভিন্ন খিত্তায় নিজেদের মধ্যে বয়ান নিয়ে আলোচনা করা হয়। বাদ জোহর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুস সাত্তার, বাদ আসর বয়ান করেন মাওলানা মোশারফ হোসেন ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন ভারতের মাওলানা জমশেদ।
হেদায়েতি বয়ান: আখেরি মোনাজাতের পূর্বে হেদায়েতি বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা জামশেদ। বিশ্ব ইজতেমার আয়োজক কমিটির মুরব্বি মাওলানা আশরাফ আলী জানান, হেদায়েতি বয়ান শেষে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন মাওলানা জামশেদ। গত শুক্রবার রাতে তাবলিগ জামাতের মুরব্বিদের বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত হয়।
বয়ানে যা বলা হলো: ইমান, আখলাক, দিনের উপর মেহনত,ইসলামকে শক্তিশালী করা, সকল ভেদাভেদ ভূলে নিজের দেশ ও মুসলিম উম্মার শান্তি বৃদ্ধিতে ভুমিকা রাখা, নবী ওয়ালা কাজে দিন ও সময় ব্যয় করা। পৃথিবীতে শান্তির বাণী ছাড়য়ে দেয়া।ইসলামকে প্রতিষ্ঠিত করা।নামাজ রোজা ও আল্লার এবাদত করা পালনের উপর বয়ান করা হয়।

টঙ্গী ওষুধ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির ফ্রি চিকিৎসা কেন্দ্রে শনিবারবার ১৮ জানুয়ারী ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন টঙ্গী ঔষধ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাহাদাত হোসেন কাজল, সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম, সহ -সভাপতি বিকাশ আর্চয,মামুন পাঠান, যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব আহসান উল্লাহ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ৪৫নংওয়ার্ড সভাপতি নাসির উদ্দীন বুলবুল ,কোষাধ্যক্ষ সালামত উল্লা, আইন সম্পাদক কাদিরুজামান হিরু, মো: দেলোয়ার হোসেন,মো: আবু সাঈদ, কবির হোসেন, খলিলুর রহমান, জীবন আলী,আল আমীন প্রমুখ।যৌতুক বিহীন বিয়ে: আজ শনিবার মূল বয়ান মঞ্চে যৌতুক বিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত না হলেও ইজতেমা ময়দানের বিশেষ কামরায় (কক্ষে) বর ও কনের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে শতাধিক বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। মাওলানা সা’দ অনুসারিদের ২০২১ সালের বিশ্ব ইজতেমার সম্ভাব্য তারিখ রবিবার আখেরি মোনাজাতের পূর্বে ঘোষনা করা হবে বলে জানান আয়োজক কমিটির মুরব্বি মনির হোসেন।
ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনই জর্ডান, লিবিয়া, আফ্রিকা, লেবানন, আফগানিস্তান, ফিলিস্তিন, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, ইরাক, সৌদি আরব, ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৩৫ দেশ থেকে দেড় সহস্রাধিক মুসল্লি আসেন। ভাষাভাষী ও মহাদেশ অনুসারে ময়দানে রয়েছেন বিদেশি মেহমানরা।
আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে পুলিশের পক্ষ থেকে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন জানান, শনিবার মধ্যরাত থেকে রোববার বিকেল পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের চান্দনা চৌরাস্তা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত, টঙ্গী-কালীগঞ্জ সড়কের মিরেরবাজার থেকে স্টেশন রোড পর্যন্ত, কামারপাড়া থেকে আশুলিয়া পর্যন্ত এবং বিমানবন্দর থেকে টঙ্গী ব্রিজ পর্যন্ত সব ধরনের যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ থাকবে। তিনি বলেন, ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশ এলাকা কড়া নিরাপত্তার মধ্যে রয়েছে। প্যান্ডেলের ভেতরে ও বাইরে মুসল্লি বেশে রয়েছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সহস্রাধিক সদস্য।
ইজতেমায় দ্বিতীয় পর্বে ৭ মুসল্লির মৃত্যু :
বিশ্ব ইজতেমায় আসা আরো চার মুসল্লি মারা গেছেন। গতকাল শনিবার পর্যন্ত দ্বিতীয় পর্বে ৭ মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- রংপুরের পীরগঞ্জ থানার ওসমানপুর এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে হুমায়ুন কবির (৬০), ঝিনাইদহ সদরের কালাহাট গোপালপুর এলাকার লুৎফর রহমানের ছেলে আ ফ ম জহুরুল আলম (৬৫), ঢাকার তুরাগ থানাধীন নলভোগ এলাকার ফজলুর রহমানে ছেলে ইলিয়াস মিয়া (৮৫) এবং গাইবান্ধার সাঘাটা থানার কামালেরপাড়া এলাকার ভিলু হাজীর ছেলে আব্দুর সোবাহান (৬৫) । শুক্রবার দিবাগত রাতে ও শনিবার ভোরে এই চার মুসল্লি মারা যান। বিশ্ব ইজতেমা ময়দান সংলগ্ন পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে।
আব্দুস সোবাহান শনিবার ভোর সাড়ে ৬টায়, ইলিয়াস মিয়া শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়, হুমায়ুন কবীর শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টায় ও আ ফ ম জহুরুল হক রাত দুইটায় মারা যান। এর আগে বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জের গোয়ারাবাজার থানার চাঁনপুর এলাকার মৃত হযরত আলীর ছেলে কাজী আলাউদ্দীন (৬২) মারা যান।
এ ছাড়া বুধবার রাতে টঙ্গীর স্টেশন রোড এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় মারা যান মুসল্লি সুরুজ মিয়া (৬০) । একই রাতে টঙ্গী জংশনে ট্রেনের ধাক্কায় মারা যান গাইবান্ধার ফুলছড়ি থানা এলাকার মুসল্লি গোলজার। শুক্রবার বাদ ফজর থেকে আম বয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। এ পর্বে মাওলানা সা’দ অনুসারি মুসল্লিরা অংশ নিচ্ছেন। কাল রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমা।
দ্বিতীয় পর্বের আখেরী মোনাজাতের সময় বন্ধ থাকছে যেসব সড়ক
বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত আগামীকাল রোববার। এ উপলক্ষে ভোর ৫টা থেকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মহাখালী থেকে জয়দবেপুর চৌরাস্তা, মীরেরবাজার থেকে টঙ্গী ও আবদুল্লাহপুর থেকে বাইপাস সড়ক পর্যন্ত সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকবে। শনিবার সকালে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আনোয়ার হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ইজতেমায় অংশ নেয়া কয়েক লাখ মুসল্লি ছাড়াও আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ইচ্ছুক অসংখ্য মুসল্লির যাতায়াতের সুবিধার্থে ভোর ৫টা থেকে বিমানবন্দর-গাজীপুরের জয়দেবপুর, চৌরাস্তা, মিরেরবাজার-টঙ্গী, আবদুল্লাপুর থেকে বাইপাস সড়কে আশুলিয়ায় ব্যারিকেড দিয়ে ইজতেমাসংলগ্ন এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রাখা হবে।
পুলিশ কমিশনার বলেন, ‘ইজতেমায় যোগ দেয়া বৃদ্ধ মুসল্লিদের যাতায়াতের জন্য শাটল বাসের ব্যবস্থা থাকবে। ইজতেমাস্থল থেকে চৌরাস্তামুখী ৩০টি এবং মহাখালীমুখী ৩০টি বাস চলাচল করবে।’ তিনি বলেন, ‘বিশ্ব ইজতেমায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও ভাল রয়েছে। আশা করছি বাকি সময়টুকুও সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হবে।’
এবারের দুই পর্বের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব গত রবিবার ১২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।
গত শুক্রবার বাদ ফজর থেকে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। এ পর্বে মাওলানা সা’দ অনুসারি মুসল্লিরা অংশ নিচ্ছেন। বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আজ রবিবার আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ২০২০ সালের বিশ্ব ইজতেমা।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here