ন্যাপ ভাসানী ঢাকা-১৪ আসনে নৌকা প্রতীকের দাবিদার

0
9
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর ( সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ) : আসন্ন ঢাকা-১৪ আসনের উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান এম. এ. ভাসানী বলেন, “৭৩ সালে গোপালগঞ্জ (মকসেদপুর-কাশিয়ানী) নির্বাচনী এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ছেড়ে দেওয়া আসনে ন্যাপ ভাসানীর ব্যারিস্টার কামরুজ্জামান সালাউদ্দিনকে স্বতন্ত্র ভাবে পাশ করিয়ে ন্যাপ ভাসানীকে সংসদীয় আসন লাভে সুযোগ করে দেয়। অনুরূপ আমিও ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান বঙ্গদ্বীপ এম. এ. ভাসানী, যোগ্য পিতার যোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট দাবী ঢাকা-১৪ আসনে নৌকা প্রতীক লাভের সুযোগ করে দিবেন। আমি জোর করে বলতে পারি ন্যাপ ভাসানী যে পরিমাণ শক্তিশালী বিভিন্ন অপশক্তিরা সে পরিমাণ দুর্বল হবে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শক্তি তথা আওয়ামী লীগ সে পরিমাণ নিরাপদ থাকবে।”
তিনি আরো বলেন, “৭২-৭৫ ন্যাপ ভাসানী, ন্যাপ মোজাফফর, মনিসিংহের কমিউনিস্ট পার্টি ও জাসদ রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় ছিল বিধায় বিভিন্ন অপশক্তিরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে নাই। ৭৫’র পটপরিবর্তনের পর জিয়া সকল অপশক্তিকে প্যাট্রোনাইজ করায় তারা শক্তিশালী হয়ে উঠে। আওয়ামী লীগের উচিত মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের যে কয়েকটি দল সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছিল তাদেরকে সহযোগিতার মাধ্যমে শক্তিশালী করে তোলা। কারণ ঐসকল দলগুলো দুর্বল হওয়ায় মৌলবাদী, স্বাধীনতা বিরোধী ও বিভিন্ন অপশক্তিরা তাদের স্থান দখল করে শক্তিশালী হয়ে গেছে।”
এম. এ. ভাসানী আরো বলেন, “পানি ও বাতাস যেমন তার সমতা রক্ষা করে, অনুরূপ রাজনীতিও তার সমতা রক্ষা করে। আমার এই ইকুয়েশনগুলো যদি আওয়ামী লীগ অনুধাবন করতে পারে বা আমলে নেয় আমরা অবশ্যই ঢাকা-১৪ আসনে ন্যাপ ভাসানীর পক্ষ থেকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পাবে। যারা আমার এ ইকুয়েশন বুঝবে না তারা অবশ্যই আওয়ামী লীগেরও ভাল চায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীরও ভাল চায় না। আমি এ ব্যাপারে যে কোন নেতৃবৃন্দের সাথে ডিবেটে বসতে রাজি আছি। আমি আবারো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ ও হস্তক্ষেপ কামনা করে ঢাকা-১৪ আসনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী। আমি কোন ভাবেই আওয়ামী লীগ অফিসে গিয়ে মনোনয়ন ফরম ক্রয় করবো না। আমাকে অনুধাবন করে ফরম কেনার ব্যাপারে আশ্বাস দিলে আমি মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করবো।”
আজ ৯ জুন ২০২১ (বুধবার) সকাল ১১ টায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে বঙ্গদ্বীপ এম. এ. ভাসানী উপরোক্ত বক্তব্য প্রদান করেন। সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কনজারভেটিভ পার্টির সভাপতি আনিসুর রহমান দেশ, লোকশক্তি পার্টির সভাপতি শাহিকুল আলম টিটু, ন্যাপ ভাসানীর মহাসচিব ইঞ্জি: রেদোয়ান আহমেদ, বিজ্ঞানী সামছুল আলম, হুমায়ন আহমেদ প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 − 15 =