পোল্যান্ডে মানব পাচাকারী সংঘবদ্ধ চক্রের দুই সদস্য ফেনী থেকে গ্রেফতার

0
23
728×90 Banner

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : বাংলাদেশ থেকে পোল্যান্ডে মানবপাচারকারী সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের দু’ সক্রিয় সদস্যকে ফেনী থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৩) এর একটি দল।
গ্রেফতারকৃতরা হচেছ, মো: মোবারক উল্লাহ (৩৩) ও মোঃ সাইফুল ইসলাম (৪২)। উভয়ের জেলা-ফেনী।
শনিবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে র‌্যাব-৩ এর সদস্যরা গোপনে ফেনী জেলার দাগনভুঁঞা থানার জগতপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মানবপাচাকারী চক্রের এ দুই সদস্য গ্রেফতার করে।
র‌্যাব-৩ এর সহকারী পুলিশ সুপার এএসপি (মিডিয়া) ফারজানা হক আজ রোববার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, এসময় মানবপাচারকারী চক্রের সদস্যদের নিকট থেকে দুইটি পাসপোর্ট তিনটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাব জানিয়েছে, বাদী মোঃ গোলাম মাওলা (৭৮), পিতা-মৃত আব্দুল হাকিম মিয়া, সাং-কেন্দুরপাড়, থানা-বেগমগঞ্জ, জেলা-নোয়াখালীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা যায় যে, বিবাদী মোঃ মোবারক উল্লাহ (৩৩) এবং মোঃ সাইফুল ইসলাম (৪২) বাদীর ছেলেকে উচ্চ বেতনে পোল্যান্ডে পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে খরচ বাবদ ৫ লাখ টাকা মৌখিক প্রস্তাব করলে বাদী প্রথমে ২ লাখ টাকা এবং পরবর্তীতে ডাচ্ বাংলার একাউন্টে আরও ২ লাখ টাকা প্রদান করেন। কিন্তু বিবাদীরা বাদীর ছেলেকে পোল্যান্ডে পাঠাতে ব্যর্থ হয়ে তার কিছু দিন পরে বাদীর ছেলেকে হাঙ্গেরী ও মালদোভা পাঠাবে বলে বাদীর ছেলের সাথে বিভিন্ন ধরণের টালবাহানা করে।
র‌্যাব আরও জানান, এক পর্যায়ে বাদী বিবাদীকে বিদেশ যাওয়ার বিষয়ে চাপ দিলে তখন বিবাদী ক্রোয়েশিয়ার ভিসা লাগানোর কথা বলে বাদীর নিকট থেকে বিকাশের মাধ্যমে আরও ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করে। বিবাদীরা বাদীর ছেলেকে ক্রোয়েশিয়া পাঠানোর নাম করে কৌশলে ইন্ডিগো বিমানে করে ভারতে নিয়ে আটক করে রাখে। তারপর বিবাদীরা বাদীর নিকট আরো সাড়ে ৫ লাখ টাকা দাবী করে। টাকা না দিলে বাদীর ছেলেকে বিক্রি করে দেবে বলে হুমকি দেয়।
র‌্যাব-৩ এর স্টাফ অফিসার অপস আরও জানান, এমন অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল শনিবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে ফেনী জেলার দাগনভুঁঞা থানার জগতপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পোল্যান্ডে মানবপাচাকারী চক্রের এ দুই সদস্যদেরকে গ্রেফতার করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত মানবপাচারকারী চক্রের সদস্যরা জানায়, তারা মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে ক্রোয়েশিয়ায় পাচারের উদ্দেশ্যে বাদীর ছেলেকে ভারতে পাচার করে। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ বিদেশ গমনে ইচ্ছুক যুবকদেরকে উন্নত জীবন-যাপনের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত দেশি-বিদেশী পাচারকারীদের সহায়তায় মানব পাচারের মতো জঘন্য অপরাধ করে আসছিল বলে স্বীকার করেছে।
এএসপি ফারজানা হক জানান, এবিষয়ে গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ফেনী জেলার দাগনভুঁঞা থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। জিঞ্জাসাবাদ শেষে তাদেরকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × five =