বেগম খালেদা জিয়াই বলেছিলেন পাগল ও শিশু ছাড়া কেউ নিরপেক্ষ নয় —-আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান

0
47
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান’-এর নীতিনির্ধারক প্রেসিডিয়াম মেম্বার্সের সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল জনগণ চায় গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতেই সংবিধান অনুযায়ী আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক। শুধুমাত্র একটি রাজনৈতিক দল ও কতিপয় জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভুলুণ্ঠিত করার জন্য তত্ত্বাবধয়াক সরকার ব্যবস্থা
নির্বাচন চায়।তাদের আসল উদ্দেশ্য তত্ত্বাবধায়ক সরকার নয়, দেশকে অস্থিতিশীল করে ফায়দা হাসিল করা। তারা বলেন, বিএনপি-জামায়াত চারদলীয় জোট ক্ষমতায় থাকাকালে বেগম খালেদা জিয়াই বলেছিলেন পাগল ও শিশু ছাড়া কেউ নিরপেক্ষ নয়। সুতরাং তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না। আর সে সময় ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতেই বিএনপি-জামায়াত চারদলীয় জোট রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদকে ২০০৬ সালে প্রেসিডেন্ট দায়িত্বের পাশাপাশি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানের দায়িত্ব দেন।পরের ইতিহাস সকলেরই জানা উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের নামে অনির্বাচিত সরকারের রূপ বিশ্ববাসী দেখেছে।
তত্ত্বাবধায়ক সরকার না থাকার পেছনে বিএনপি-জামায়াতই দায়ী উল্লেখ করে তারা বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা আওয়ামী লীগ বা বর্তমান সরকার বাতিল করেনি। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করেছে দেশের উচ্চ আদালত, যা সর্বোচ্চ আদালতেও বহাল আছে। তাই তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যু এখন শুধুই অতীত। তারা আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত চারদলীয় জোটের আমলে দেশ দুর্নীতি পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো। অথচ তারাই এখন দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচচার,যা হাস্যকর।
আজ শনিবার (২১ জানুয়ারি ২০২৩) বিকেলে রাজধানীর শান্তিনগরে আয়োজিত ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান’ সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম মেম্বার্সের সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোঃ হুমায়ুন কবির। সংগঠনের সাধারণ সম্পদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম নয়নের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এই সভায় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের প্রেসিডিয়াম মেম্বার’স হাজী মোঃ এমদাদুল হক, মোঃ নুরুজ্জামান ভুট্টো, মনিরুল ইসলাম,সালমান মাহমুদ জসীম,অমরেশ রায়, গাজী শফিক,এড. সাইফুল বাহার মজুমদার,লুবনা খানম, এড. এনামুল হক কাজল।
তারা আরও বলেন, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ বা বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী নামে বাংলাদেশে কোন রাজনৈতিক দলের রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই। তাদের নিবন্ধন বাতিল হয়েছে।এটি বাংলাদেশে নিষিদ্ধ একটি রাজনৈতিক দল উল্লেখ করে তারা বলেন, এই দলের ব্যানারে বাংলাদেশে এখনও কিভাবে মিছিল-মিটিং করার দু:সাহস দেখায় তা বোধগম্য নয়।নিষিদ্ধ এই দল বা সংগঠনের কেউ যাতে কোন প্রকার মিছিল মিটিং করতে না পারে সে জন্য সরকার বা সরকারের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীকে কঠোর অবস্থানে থাকতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here