ভ্যাকসিন উপহার দিয়ে বন্ধুত্বের পরিচয় দিয়েছে ভারত…….লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল

0
42
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক :বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল বলেছেন, করোনা ভাইরাসের ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন উপহার দিয়ে প্রকৃত বন্ধুত্বের পরিচয় দিয়েছে ভারত। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে সমর্থন দিয়ে ভারত বাংলাদেশের পাশে ছিল। ১ কোটি বাঙালিকে আশ্রয়, খাবার এবং মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র সরবরাহ করে ভারত সরকার স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করেছিল। ফলে ভারত সরকার ও জনগণের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। তিনি আরো বলেন, ভারতের সব জনগণ এখনও ভ্যাকসিন পায়নি, তার আগেই আমাদেরকে ২০ লাখ করোনা ভ্যাকসিন উপহার দিয়ে ভারত সরকার যে অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছে তার জন্যে ভারত সরকারকে ধন্যবাদ জানাই।
বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের উদ্যোগে ২৬ জানুয়ারি বিকেলে ঢাকার বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশকে ২০ লাখ করোনা টিকা অনুদান হিসেবে দেওয়ায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানিয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সভাপতি এম এ জলিলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সাবেক রাষ্ট্রদূত অধ্যাপক নিম চন্দ্র ভৌমিক। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা কবি নাহিদ রোকসানা, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান এম.এ ভাসানী, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ কাজী ফারুক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, উপ-কমিটির সদস্য খন্দকার তারেক রায়হান, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এর কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য লোকমান হোসেন চৌধুরী, জাতীয় স্বাধীনতা পার্টির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু, কনজারগেটিভ পার্টির সভাপতি আনিসুর রহমান দেশ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমাজ কল্যাণ উপকমিটির সদস্য মোঃ ইদ্রিস মল্লিক, বরিশাল বিভাগ সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ স ম মোস্তফা কামাল, নারী নেত্রী এলিজা রহমান, ন্যাপ ভাসানীর সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী রেদওয়ান শিকদার, মোবাইল টেলিকম এসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ, জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সমির রঞ্জন দাস, শ্রমিক নেতা রঞ্জন রায় ও লীগের দপ্তর সম্পাদক কামাল হোসেন প্রমুখ।
অধ্যাপক নিম চন্দ্র ভৌমিক বলেন, ভারত আমাদের পরীক্ষিত বন্ধু। মুক্তিযুদ্ধের সময় তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দ্রিরা গান্ধী ও ভারতের জনগণ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশের পাশে এসে দাড়িয়েছিল। ভারত ১ কোটি শরনার্থীদের আশ্রয় দিয়েছেন, খাবার দিয়েছেন এবং তিন লক্ষ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছেন, অস্ত্র দিয়েছেন এবং ১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন এবং মিত্র বাহিনী বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে যৌথভাবে যুদ্ধ করেছেন।
সভাপতির বক্তব্যে এম এ জলিল বলেন- মহান গণতান্ত্রিক ভারত, বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়ে প্রতিবেশি নয়টি দেশকে টিকা উপহার দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

thirteen + 8 =