রাজধানীতে সৎ বাবার মারধরে শিশুর মৃত্যু

0
29
728×90 Banner
মোঃরফিকুল ইসলাম মিঠু :  রাজধানীর দক্ষিণখানের কাওলায় নামিরা ফারিজ নামে তিন বছরের একটি শিশু বাবার অত্যাচারে মৃত্যু বরণ করেন। দক্ষিণখান থানার পুলিশ ও এলাকাবাসীর ভার্ষ্য মতে সৎবাবা শহীদুল ইসলাম তাকে হত্যা করেছেন। জিজ্ঞাসাবাদে শহীদুল এ কথা স্বীকার করেন। গত ১২ মে বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে ঘটনাটি ঘটে কাওলা এলাকায় । এরপর শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দুইটার দিকে শিশুটি মারা যায়।
শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে দক্ষিণখান থানা-পুলিশ। এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন শিশুটির মা তাসলিমা জাহান। সৎবাবা শহীদুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে দক্ষিণখান থানা-পুলিশ।
দক্ষিণখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ মামুনুর রহমান  বলেন, গত বৃহস্পতিবার নামিরাকে শহীদুল ইসলামের কাছে রেখে আইইএলটিএস পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলেন মা তাসলিমা জাহান। বাসায় ফিরে দেখেন শিশুটির মাথা থেকে রক্ত ঝরছে। তাকে স্থানীয় একাধিক হাসপাতালে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল ভোরে হাসপাতালে সে মারা যায়।
ওসি বলেন, বিষয়টি জানার পর শিশুটির মা ও সৎবাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রায় ১২ ঘণ্টা ধরে অনুসন্ধান এবং দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে শহীদুল ইসলাম জানান, কারণে-অকারণে শিশুটিকে তিনি চড়-থাপ্পড় দিতেন। গতকালও শিশুটিকে চড়-থাপ্পড় দেন তিনি। এই থাপ্পড়ে ছিটকে গিয়ে খাটের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মাথায় গুরুতর আঘাত পায় শিশুটি।এরপর থেকে আজহারুল ইসলাম বাসায় প্রবেশ করলেই শিশুটি সবসময় আতঙ্কে থাকতো।
এদিকে দক্ষিণখান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রেজিয়া খাতুন বলেন, শুক্রবার সকালে খবর পেয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন শিশুটির মা তাসলিমা জাহান ইমা। শিশুটির সৎ বাবা আজহারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে আজ  শনিবার সকালে আদালতে প্রেরণ করে সাতদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায়, আজহারুল ইসলাম ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে সেফ হিসেবে কর্মরত। তার মা তাসলিমা জাহান ওই হোটেলেরই কোরিওগ্রাফার। সাত-আট মাস আগে তাসলিমা আগের স্বামী নাইমুল ইসলামকে ডিভোর্স দিয়ে আজহারুল ইসলামকে বিয়ে করেন। দক্ষিণখানের আশকোনা আইডিয়াল একাডেমি এলাকার একটি বাড়ির আটতলায় মা তাসলিমা জাহান ও সৎ বাবা আজহারুল ইসলামের সঙ্গে থাকতো শিশুটি।
Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

twenty − 8 =