শরিয়তপুর সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রিয়া সরকার

0
275
728×90 Banner

মোঃ বেলায়েত হোসেন সিদ্দিক (উত্তরা প্রতিনিধি): একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনী এলাকা শরিয়তপুর বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী (এমপি) প্রার্থী প্রিয়া সরকার। তিনি বলেন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জাতির জনকের সুযোগ্য কণ্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে আগামী দিনে দেশের সর্বস্তরের মানুষের জন্য কাজ করতে চাই।
তিনি আরও বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মধ্যে উন্নয়নের রোল মডেল। দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেত্রীত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আগামীতে আরো বেশি এগিয়ে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করে আওয়ামীলীগের সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী (এমপি) প্রার্থী প্রিয়া সরকার।
গত শুক্রবার আমাদের উত্তরা প্রতিনিধি মোঃ বেলায়েত হোসেন সিদ্দিক এর সাথে উত্তরায় এক সৌজন্য সাক্ষাতকারে তিনি এসব কথা বলেন।
পারিবারিক জীবনের কথা উল্লেখ করে প্রিয়া সরকার বলেন- শরিয়তপুর জেলা ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার সরকার ও মল্লিককান্দি গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের জন্মগ্রহন করেন তিনি, তার মাতার নাম লুৎফর নেছা সরকার। পিতা মৃত নুরুল ইসলাম সরকার। বর্তমানে তিনি রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানাধীন এলাকায় বসবাসরত আছেন।
তিনি বলেন- একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ’’নির্বাচনী এলাকা শরিয়তপুর’’ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেব্ েগত ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ একটি আবেদন ফরম ক্রয় করেছি। যার ফরম (ক্রমিক) নম্বর ১০৪২ ।
কত দিন ধরে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত আছেন এমন প্রশ্নের জবাবে প্রিয়া সরকার বলেন, বিগত ২০০৪ সাল থেকে শুরু করে ২০১২ সাল দীর্ঘ প্রায় ৯ বছর উত্তরা থানা কৃষকলীগের সহ সম্পাদিকা পদে নিষ্টা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছি। এছাড়া আমি বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা সম্পাদক হিসেবে আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক পর্যায়ে বর্তমানে পদমর্যাদায় আছি।
১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে পরিবারের ভুমিকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন,১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে বাংলাদেশী মুক্তিযোদ্ধাদের থাকা খাওয়া সহ তাদেরকে সার্বিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে আমার ভুমিকা ছিল অগ্রনী।
রাজনীতি করার ক্ষেত্রে নির্যাতন ও জেলজুলুমের কথা উল্লেখ করে শরিয়তপুর সংরক্ষিত আসনের নারী এমপি প্রার্থী প্রিয়া সরকার বলেন, আমার পরিবার হলো রাজনৈতিক দলের পরিবার। বিএনপি- জামাত জোট সরকারের শাসনামলে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে আমার কঠোর ভুমিকা ছিল। রাজনীতি করতে গিয়ে সভা-সমাবেশ করার সময় একাধিকবার পুলিশী নির্যাতন, হামলা-মামলা সহ নানা ভাবে হয়রানীর শিকার হয়েছি।
সামাজিক কর্মকান্ড ও গঠনমূলক অবদান গুলোর কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশে সম্প্রতি সময়ে বন্যা কবলিত সহ যে কোন দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত সাধারণ মানুষের পাশে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ, ঈদের সময় গরিব, দুঃখি ও অসহায় মানুষের মধ্যে সেমাই, চিনি, চাল, ডাল, পণ্যসামগ্রী সহ শীতার্থ মানুষের মধ্যে কম্বল এবং শীত বস্ত্র বিতরণ সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনকে আর্থিক সাহার্য্য সহযোগিতা দীর্ঘ দিন ধরে করে আসছি।
শিক্ষাজীবন ও পারিবারিক জীবন প্রসঙ্গে প্রিয়া সরকার বলেন, ছোটকাল থেকে আমার দাদা ও বাবা আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল। আমিও তাদের কর্মকান্ডের সাথে একত্রিত হয়ে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে মনেপ্রাণে ভালবেসে দলের জন্য সততা, নিষ্টার সাথে কাজ কওে যাচ্ছি।
তিনি বলেন- শরীয়তপুর আসন ছাড়া -’’ঢাকা মহানগরের যে কোন আসন’’ দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনার পছন্দ অনুযায়ী আমি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে নির্বাচন করতে প্রস্তুত আছি। দল থেকে যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি অবশ্যই নির্বাচনে অংশ নিব।
এসময় তিনি আরো বলেন- বাংলাদেশের মানুষের প্রানপ্রিয় নেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা দলের সবাই একত্রিত হয়ে কাজ করছি। দলের মধ্যে কোন ধরনের বিরোধ নেই। আমরা সকলের নৌকার পক্ষে শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছি। বর্তমান সরকার সুষ্ঠ ও সুন্দর ভাবে দেশ পরিচালনা করছেন। বর্তমান সরকারের শাসনামলে সারা বাংলাদেশে যে পরিমান উন্নয়ন হয়েছে অতীতে আর কোন সরকারের আমলে সেটি হয়নি। বর্তমান সরকার হলো উন্নযনের সরকার। জাতির জনকের কণ্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে।
আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড পদ্মাসেতু, ফ্লাইওভার ও মেট্রোরেল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেশীয় টাকা দিয়ে সরকার পদ্মা সেতু নির্মান করছেন। বিদেশী অর্থায়নে নয়। এটা সত্যিকারে গোটা বাঙ্গালী জাতির গর্ব। এছাড়া ফ্লাইওভার ও মেট্রোরেল তৈরী করছেন সরকার। অতীতে আর কোন সরকার তা করতে পারেনি। সেজন্য আমি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাচিছ।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here