স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের ব্যতিক্রমী আয়োজন

0
83
728×90 Banner

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ জার্নলিস্ট এসোসিয়শন গত ১৯শে মার্চ স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টায় সিডনির লাকেম্বাস্থ একটি ফাংশন সেন্টারে এক আলোচনা সভা, সম্মাননা প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।
সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মাদ আব্দুল মতিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, বাসভূমি মিডিয়ার কর্ণধার আকিদুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এনজিও এফেয়ার্স ব্যুরোর মহাপরিচালক (পিআরএল) কে এম তারিকুল ইসলাম।
বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের অস্ট্রেলিয়া শাখার সভাপতি বিশিষ্ট আইনজীবি ড. সিরাজুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা এনায়েতুর রহিম বেলাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান তরুন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আহমেদ মজুমদার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এএইচএম হেলাল উদ্দিন।
অনুষ্ঠানে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ পাঠের পর সমবেত কন্ঠে পরিবেশিত হয় বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত। একটি বিশেষ পর্বে সংগঠনের পক্ষ থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের দেওয়া হয় সম্মাননা স্মারক। এই পর্বটি সঞ্চালনা করেন সংগঠনের উপদেষ্টা ড. রতন কুন্ডু। প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে ক্রেষ্ট তুলে দেন। প্রধান অতিথিকে ক্রেষ্ট দিয়ে সম্মাননা প্রদান করেন সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ আব্দুল মতিন।
এরপর বীর মুক্তিযোদ্ধারা তাঁদের স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্যে স্বাধীনতার তাৎপর্য তুলে ধরেন ও স্বাধীনতার মূল্যবোধ প্রচারে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান। সংগঠনের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন জেষ্ঠ সহ সভাপতি মোহাম্মাদ আসলাম মোল্যা, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ আবদুল্লাহ, সহ সভাপতি ড. তারিকুল ইসলাম, সম্মানিত সদস্য আকিদুল ইসলাম, মিডিয়া ও কম্যুনিকেসন সম্পাদক জিয়াউল কবির জিয়ন, সদস্য সুহৃদ সোহান হক, প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য-কবি হায়াত মাহমুদ, আরিফুর রহমান খাদেম, আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে ফটোগ্রাফীর দায়িত্ব পালন করেন সংগঠনের সদস্য জাহাঙ্গীর আলাম ও মোহাম্মাদ রেজাউল করিম। আমন্ত্রিত বিশেষ অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ড. সিরাজুল হক, ড. রফিকুল ইসলাম, নির্মল পাল, ডাঃ আব্দুল ওহাব, ফজলুল হক শফিক, আবুল হাছান, কামরুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী, মোস্তাফিজুর রহমান তালুকদার মন্জু প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও বাংলাদেশী কমিউনিটির সিনিয়র নেতৃবন্দ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে অল ইওরোপীয়ান ইউনিয়ন জার্নালিস্ট এসোসিয়শনের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান টিটু বক্তব্য রাখেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে সারা বিশ্বে প্রবাসী সাংবাদিকদের সীমাবদ্ধতার উপর আলোকপাত করেন। অনুষ্ঠানের বিশেষ পর্বে “দেশের গান দশের গান” শীর্ষক একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। এই পর্বটি সন্চালন করেন ড. রতন কুন্ডু। এ পর্বে স্বাধীনতার কবিতা আবৃত্তি করেন মোস্তাক আহমেদ প্রিন্স, ড. তারিকুল ইসলাম, কবি হায়াত মাহমুদ ও সুহৃদ সোহান হক। সংগীত পরিবেশন করেন সিডনির প্রথিতযশা কন্ঠশিল্পী নিলুফা ইয়াসমীন, মিঠু স্বপ্ন ব্যান্ড, ইভানা খালেদ, সমীর রোজারিও, এলেন যোশেফ, রুহুল আমিন ও সুহৃদ সোহান হক। সাউন্ড সিস্টেমে ছিলেন এলেন যোশেফ ও সমীর রোজারিও।


অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন সংগঠনের সম্মানিত সদস্য দিদার হোসেন ও প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাজী মো: দেলোয়ার হোসেন।
প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই এরকম একটি বিশাল ও তাৎপর্যপূর্ণ আয়োজনের জন্য অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ জার্ণালিষ্ট এসোসিয়েসনকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন জাতির জনক তাঁর পুরো জীবনেই দেশকে তথা দেশের মানুষকে ভালোবেসে অপরিসীম কষ্ট ও ত্যাগ তিতিক্ষার মাধ্যমে অভূতপূর্ব দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন, যা পুরো জাতি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে। তিনি আরো বলেন সাম্প্রতিক সময়ে তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সফল নেতৃত্বের মাধ্যমে বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও বর্ণাঢ্য কর্মজীবন পরবর্তী প্রজন্মকে ব্যক্তি জীবনে ধারণ করার উপরও তিনি গুরুত্ত্বারোপ করেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন ও আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশের অভ্যুদয় ও তার অগ্রযাত্রা তুলে ধরেন।
সমাপনী বক্তব্যে মোহাম্মদ আব্দুল মতিন আগত অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে ও সবাইকে নৈশভোজে আমন্ত্রন জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here