১৯৫৭ সালে বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে বাংলাদেশের চলচিচত্র জগতের যাত্রা শুরু হয়——- তথ্যমন্ত্রী

0
118
728×90 Banner

এস, এম, মনির হোসেন জীবন : তথ্যমন্ত্রী ও আওয়াামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ১৯৫৭ সালে প্রাদেশিক সরকারের আমলে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরে বাংলাদেশের চলচিচত্র জগতের যাত্রা শুরু হয়েছিল।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, সে সময়ে ভারতীয় বাংলা, পাকিস্তানী বাংলা ছবি তৈরী করা হত। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ঘিরে তার উপর শর্টফ্লীম ও ডকোমেনন্টারী তৈরী করা হয়েছে। তার প্রথম পর্বের কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে।
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এসময় আরও বলেন, বাংলাদেশ চলচিচত্র উন্নয়ন কর্পোরশনের বিভিন্ন সেক্টরের উন্নয়নের লক্ষে ৩২৭ কোটি টাকা বরাদ্ব করা হয়েছে। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর মুজিববর্ষ পালনের লক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। এর পাশাপাশি বাংলাদেশ ভারত যৌথভাবে ছবি তৈরী করছে।
আজ বুধবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুর ১টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উৎযাপন উপলক্ষে আলোচনা- আনন্দ র‌্যালীর ও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে জাপান ও মালয়েশিয়ার মতো একটি উন্নত রাষ্ট্র রূপান্তরিত করতে চেয়েছিলেন। আমরা তার দেখানো পথেই হাঁটছি। আশা করছি ২০৪০ সালের আগেই বাংলাদেশকে আমরা পৃথিবীর মধ্যে এগিয়ে নিতে পারবো।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর পুরো দেশ বিধ্বস্ত ছিল। তখন বৈদেশিক আয় ছিল ৭.৪ শতাংশ। সেসময় দুই থেকে তিন কোটি মানুষকে পুনর্বাসন করা খুব সহজ ছিল না। বঙ্গবন্ধু এ মানুষকে পুনর্বাসন করে যখন দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন তখন সাড়ে তিন বছরের মাথায় বঙ্গবন্ধুকে ষড়যন্ত্রকারীরা হত্যা করে। তিনি যদি এখ নপর্যন্ত বেঁচে থাকতেন তাহলে অনেক আগেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ বিশ্বের মধ্যে উন্নতরাষ্ট্রে পরিণত হত।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের বসবাস। তার মধ্যে ১৫ কোটি মানুষ বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন। পাশাপাশি ১১ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। সারা বিশ্বের মধ্যে পিপিপিতে বাংলাদেশের অবস্থান ২৮তম।
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, আজকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের দেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। আমাদের উদ্দেশ্য ২০৪১ সাল নাগাদ রাষ্ট্রকে একটি উন্নত দেশে পরিণত করা। একইসঙ্গে আমাদের লক্ষ্য একটি উন্নত জাতি গঠন করা। শুধু উন্নত রাষ্ট্র গঠন করলে হবে না, আমরা উন্নত রাষ্ট্র গঠন করার পাশাপাশি একটি মানবিক রাষ্ট্র গঠন করতে চাই। আমরা অন্যদের অন্ধ অনুকরণে উন্নত রাষ্ট্র হতে চাই না।
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নিবর্াাচন সুষ্ট হবে আশাবাদ ব্যক্ত করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি ঢাকা সিটির ১ ফেব্রæয়ারি নির্বাচনকে পূজি করে নির্বাচনের পরিবেশ বিনষ্ট করার জন্য একের পর এক ষড়যন্ত্র, অরাজকতা সৃষ্টি করার জন্য বিভিন্ন ধরনের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।
সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জাতীয় নির্বাচন সহ দেশের সকল নির্বাচন সরকারের অধীনে হয় না । নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে সরকার নির্বাচন কমিশনকে বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা করে থাকে।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, অপরাজনীতির সাথে বিএনপি জড়িত। তারা অতীতের মতো নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জ্বালাও পোড়াও ও সংঘেের্ষর রাজনীতি সৃষ্টি করার পায়তারায় লিপ্ত রয়েছে। এটি হতে পারেনা।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনকে ঘিরে ইতি মধ্যে যে ঘটনা গুলো ঘটেছে সে সব বিচিছন্ন ঘটনা।
আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর তেঁজগাওস্থ বাংলাদেশ চলচিচত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন প্রাঙ্গনে চলচিচত্রলীগ এর উদ্যোগে এই আনন্দ র‌্যালী বের করা হয়। তথ্যমন্ত্রী ও আওয়াামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ চলচিচত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুসফিকুর রহমান গুলজার, সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম খোকন, চলচিচত্রলীগ এর সভাপতি এস,এ খালেক, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম কিরন, অভিনেতা মো: আলমগীর, অভিনেত্রী মৌসুমি সহ অন্যান্যরা সাথে ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here