৬০ শতাংশ ভারতীয় মুসুল্লীর ইজতেমায় যোগদান অনিশ্চিত

0
303
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: ভিসায় শর্ত আরোপ করায় অনেক মুসুল্লীর এবার বিশ্বইজতেমায় যোগ দেয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন তাবলীগ মুরুব্বীরা। বিশেষ করে ভারতীয় ৬০ শতাংশ মুসুল্লী এবার এ ইজতেমায় অংশ নিতে পারবেন না।
ইজতেমার প্রস্তুতি কমিটির মুরুব্বী ইঞ্জিনিয়ার মো. মাহফুজুর রহমান জানান, ইজতেমার বিদেশি মুসুল্লীদের ভিসা দেয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন শর্ত আরোপ করা হয়েছে। এতে অল্প সময়ে সকল শর্ত পূরণ করে মুসুল্লীদের টঙ্গী ইজতেমায় অংশগ্রহণ প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে ভারতীয় নাগরিকদের ক্ষেত্রে যারা নিজামউদ্দিন/সা’দ সাহেব বিরোধী তাবলীগী মুসুল্লীদের বোম্বের (নেরুল) মার্কাজ এবং দিল্লীর (ফয়েজ-ই এলাহী) মার্কাজের শর্ত সাপেক্ষে ভিসা দেবার কথা সভায় আলোচনা হলেও সিদ্ধান্তে তা দেয়া হয়নি। ফলে ৬০শতাংশ ভারতীয় মুসুল্লীরা তাবলীগ ভিসা পাবেন না। কারণ ৬০শতাংশ ভারতীয় তাবলীগী মুসুল্লী উক্ত দুই মার্কাজের সঙ্গে যুক্ত। এ ছাড়া কোন মুসুল্লী টুরিস্ট ভিসায় ইজতেমায় অংশ গ্রহণ করতে পারবে না। ইজতেমায় যোগ দিতে বিদেশী মুসুল্লীদের শর্ত সহজীকরণ না করলে মুসুল্লী সংখ্যা কমে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে যারা অন-অ্যারাইভাল ভিসা পাবেন তাদেরকে তাবলীগের ক্ষেত্রে যে সকল শর্ত দেয়া হয়েছে তা শিথিল করলে তাবলীগের মেহমান অনেক বেড়ে যাবে।
১০ শর্তে ইজতেমায় অনুষ্ঠানে জোবায়ের পন্থী এবং সা’দ পন্থী তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীরা এবারের ইজতেমায় অংশ নিতে রাজি হলেও জোবায়ের পন্থীরা সা’দ কান্ধলবির সঙ্গে তার ছেলে ইউসুফ কান্ধলবিও টঙ্গীর ইজতেমায় অংশ নিন তাতে রাজি নন।
এদিকে শুক্রবার সকালে টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে গিয়ে দেখা গেছে, মাওলানা জুবায়ের পন্থীদের নেতৃত্বে বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার লোকজন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে বিশ^ইজতেমা ময়দানে প্যান্ডেল নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন। কেউ বিদ্যুতের লাইন টানছেন, কেউ চট টানাচ্ছেন, কেউ খুটি পুতছেন। মোতাবেক সেখানে সাদ পন্থী কেউ যাননি। আগামী ১৫ ফেব্রয়ারি ইজতেমা শুরুর আগেই মাঠের প্রস্তুতির কাজ শেষ হয়ে যাবে বলেন জেবায়ের পন্থী মুরুব্বী মেজবাহ উদ্দিন।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক সাদ পন্থী এক শীর্ষ মুরুব্বী জানান, ইজতেমা ময়দানের প্রস্তুতি কাজে সাদ পন্থীরাও অনুমতি পেলে কাজ দ্রত সম্পন্ন করা সম্ভব হত। ইজতেমা শুরুর আগে এই কদিনে বিরাট ময়দানের প্রস্তুতি তাদের পক্ষে সম্পন্ন করা সম্ভব না হতে পারে। অপর দিকে তাবলীগে ভিসার ব্যাপারে তিনি জানান, সাদ ও জোবায়ের পন্থী উভয় মার্কাজের পক্ষ থেকে স্পন্সর করার বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত হয়েছে। এতে ভারতের মুসুল্লীদের টঙ্গী ইজতেমায় আগমনে কোন সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তবে সাদ কান্ধলভি ইজতেমায় না গেলে ভারত থেকে এমনিতেই অনেক মসুল্লী টঙ্গীর ইজতেমায় যোগ না দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এটা আঁচ করতে পেরে জোবায়ের পন্থীরা ভিসা সহজীকরণের ছুঁতায় ভারতীয় মুসুল্লী না আসতে পারার কথা বলছেন ।
একই ময়দানে আসন্ন ১৫-১৬ ফেব্রয়ারি দুইদিন জোবায়ের পন্থী এবং ১৭-১৮ফেব্রয়ারি দুইদিন সাদ পন্থীদের তত্বাবধানে ইজতেমা অনুষ্ঠানের জন্য নির্ধারণ করা হয়। তবে মাঠ প্রস্তুতির জন্য জোবোয়ের পন্থীরা দায়িত্ব পালন করছেন।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here