ইউপি সদস্য হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

0
23
728×90 Banner

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইল সদর উপজেলার চন্ডিবরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য ছানোয়ার হোসেন মোল্যা (৭০) হত্যা মামলার আসামীদের দ্রæত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছে এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা। রোববার (১৭ জানুয়ারী) সকাল সাড়ে ১০টায় বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ কমপ্লেক্স চত্বরে এসব প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হয়।
চন্ডিবরপুর ইউনিয়নবাসী ও আলীগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির উদ্যোগে হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে আলীগঞ্জ বাজার থেকে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি স্থানীয় সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্মৃতি যাদুঘর ও পাঠাগার চত্বরে শেষ হয়। এসময় কয়েকশত নারী-পুরুষসহ বিভিন্ন বয়সী মানুষের অংশগ্রহণে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন চলাকালে আসামীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানিয়ে বক্তব্য দেন চন্ডিবরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান ভূইয়া, সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন, চন্ডিবরপুর ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন, নিহতের ছেলে মাহাবুর রহমান মোল্যা, শিক্ষক নেতা মো. কামরুজ্জামান, সমাজ সেবক মো. নবীর হোসেন, শাহাদত হোসেন সাবু প্রমুখ। এঘটনায় নিহতের ছেলে বর্তমান ইউপি সদস্য মাহাবুর মোল্যা বাদী হয়ে ৭জনের নাম উল্লেখ করে সদর থানায় মামলা করেন।
পরে পরিবারের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে আসামীদের দ্রæত গ্রেফতার ও দ্রæত বিচার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে মামলার বিচারকার্জ সম্পন্ন করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
প্রসঙ্গত, চন্ডিবরপুর ইউনিয়নের ভুমুরদিয়া গ্রামের ছানোয়ার হোসেন মোল্যা গত ১০ জানুয়ারী সকাল সাড়ে ১০টার বোড়াবাদুরিয়া এলাকায় পৌঁছান। তখন আউড়িয়া ইউনিয়নের দত্তপাড়া গ্রামের ৭/৮জন সন্ত্র মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে বেপরোয়াভাবে মারপিট করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়। স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় মুমূর্ষু তাকে সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে যশোরের একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থায় অবনতি ঘটলে ১৪ জানুয়ারী সকালে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। তখন চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নড়াইল সদর থানার ওসি মো. ইলিয়াস হোসেন জানান, ‘আসামীরা পলাতক থাকার কারণে এখনও কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। তবে আসামীদের গ্রেফতারের জন্য জোর চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

fourteen − ten =