”ফলো-আপ”বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি :নারী শিশুসহ ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার

0
35
728×90 Banner

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : রাজধানীর অদূরে শ্যামবাজার – ফরাসগঞ্জে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত নারী শিশু সহ মোট ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সহ আইনশৃংখলা বাহিনী। এঘটনায় মো: রিফাত (২৪) নামে এক যুবককে জীবিত অবস্থায় উদ্বার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সদস্যরা।কর্তৃপক্ষের দাবি, লঞ্চটিতে শিশু নারীসহ প্রায় অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিল। তবে, ওই লঞ্জের যাত্রী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুর্ঘটনা কবলিত লঞ্চটিতে শতাধিক যাত্রী ছিল।
এদিকে, আজ দুপুরে লঞ্জ দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স বাহিনীর মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসাইন, পরিচালক (অপারেশন-মেইনটেন্সেস) লেফটেন্ট্যান্ট কর্ণেল মো: জিল্লুর রহমান,, উপ-পরিচালক (ঢাকা) দেবাশীষ বর্ধণ, সহকারী পরিচালক মো: সালেহ উদ্দিন ও উপ-সহবারী পরিচালক (ঢাকা জোন-৩) এর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
এদিকে, আজ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদর দফতরের ডিউটি অফিসার লিমা থানম গনমাধ্যমকে জানান, বুড়িগঙ্গা নদীতে মর্নিং বার্ড লঞ্চডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।নিহতদের মধ্যে রয়েছেন তিন জন শিশু,আট জন নারী ও একুশ জন পুরুষ রয়েছেন। তাদের নাম ও বিস্তারিত পরিচয় এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি।
ডিউটি অফিসার লিমা থানম বলেন, ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ডুবুরি টিম,একটি ক্রাউন কন্ট্রোল টিম, একটি অগ্নিশাসক জাহাজ ও বিআইডব্লিডও সহ আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা এখনও পর্যন্ত উদ্বার অভিযানে কাজ করছেন।উদ্বার অভিযান এখনও সমাপ্তি হয়নি।চলমান রয়েছে। তার মধ্যে ডুবুরি টিমের ১৪ সদস্য সহ ৮০ সদস্য কাজ করছেন।
এদিকে, আজ সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদরদপ্তরের ডিউটিরত কর্মকর্তা মো: জীবন মিয়া গনমাধ্যমকে জানান, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সদস্যরা মো: রিফাত (২৪) নামে এক যু্বককে জীবিত অবস্থায় উদ্বার করেছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা এখনও পর্যন্ত ঘটনাস্থলে আছেন। অভিযান এখনও সমাপ্তি হয়নি।
ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা জানান, নিহতের মরদেহ গুলো তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হচেছ। বাকী মরদেহ গুলো পুলিশের হেফাজতে আছে। এখনও পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে কোন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়নি।
এদিকে, কোস্ট গার্ড সদর দফতরের মিডিয়া উইং এর কর্মকর্তা লেঃ কমান্ডার হায়াৎ ইবনে সিদ্দিক আজ গনমাধ্যমকে জানান, এখন পর্যন্ত নারী শিশুসহ ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত সন্দেহ থাকবে এখনও মরদেহ থাকতে পারে, ততক্ষণ পর্যন্ত কোস্ট গার্ডের উদ্ধার অভিযান চলমান থাকবে।
এদিকে, ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজ্জাদ হোসেন আজ গনমাধ্যমকে জানান, দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে কাজ চলছে। উদ্ধার তৎপরতা শেষে ফায়ার সার্ভিস আলাদা একটি তদন্ত কমিটি গঠন করবে।
এ বিষয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও বিআইডব্লিউটিএ সুত্রে জানা গেছে, আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মর্নিং বার্ড লঞ্চটি সদরঘাট কাঠপট্টি ঘাটে ভেড়ানোর আগ মুহূর্তে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ লঞ্চটি পিছন দিক থেকে সজোরে এসে ধাক্কা দেয়। এসময় মর্নিং বার্ড লঞ্চটি যাত্রী নিয়ে বুড়িগঙ্গা নদীতে ডুবে গেলে এদুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজে অংশ নেয় বাংলাদেশ নৌবাহিনী, কোষ্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিস, নৌপুলিশ ও থানা পুলিশ। এছাড়া উদ্ধার কাজে অংশ নেয় বিআইডব্লিউটিএর একটি উদ্ধারকারী জাহাজ।উদ্বার তৎপরতা ও অভিযান এখনও চলমান রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here