সাবাস পরিমণি, সাবাস!!

0
651
728×90 Banner

হাসানুজ্জামান সাকী,নিউ ইয়র্ক: সেলিব্রেটিদের ব্যক্তিগত জীবন আর দশটা সাধারণ মানুষের মতোই। কিন্তু তারপরও সারা পৃথিবীতেই সেলিব্রিটিরা নিজেকে একটু গুটিয়ে রাখতে পছন্দ করেন। সাধারণ মানুষের ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকেন। তাদের জীবনেও প্রেম আসে, বিয়ে হয়। সন্তানের বাবা-মা হন। কখনও তাদের সম্পর্কে ভাঙন দেখা দেয়। কিন্তু এসব বিষয় কোনোটাই তারা মানুষকে জানতে দিতে চান না।
একটা প্রচলিত ধারণা আছে যে সেলিব্রিটিরা সম্পর্কে জড়িয়ে গেলে, বিয়ে হয়ে গেলে তাদের তারকাখ্যাতি কমে যায়। বিনোদন জগতে তাদের ধস নামে। কিন্তু বিশ্বব্যাপী সেকেলে এ ধারণা ভাঙতে শুরু করলেও বাংলাদেশের সেলিব্রিটিদের অনেকেই পুরনো ধ্যান-ধারণা ছাড়তে পারেননি। এ ক্ষেত্রে সাকিব-অপুর দশ বছরের বিয়ে, সন্তান হওয়া কিংবা বারো বছর ধরে ইমনের স্ত্রী-সন্তানের পরিচয় গোপন রাখার মতো ঘটনার উদাহরণ দেওয়া যায়।

হলিউডে অনেক আগেই ধারণা পাল্টেছে। বলিউডে তো বটেই এমনকি পশ্চিম বাংলায়ও চলচ্চিত্রের নায়ক-নায়িকার প্রেম-বিয়ে তাদের ক্যারিয়ারের ক্ষেত্রে এখন কোনো ফ্যাক্টর নয়। হলিউড-বলিউড-টলিউডের সব নায়করা বিবাহিত। কিংবা কেউ কেউ দীর্ঘদিনের সম্পর্কে জড়িত। বিষয়টি আর গোপন নেই।
কিন্তু আমাদের এখানে সেকেলে ধারণা ভাঙছে তবে খুবই ধীর গতিতে। সম্প্রতি বাংলা চলচ্চিত্রের নায়ক সিয়াম তার প্রথম চলচ্চিত্র মুক্তি পাওয়ার পরই দীর্ঘ দিনের প্রেমিকাকে বিয়ে করেছেন অনেকটা ঘটা করেই। তিনি তার ক্যারিয়ারে বিয়ে কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবে বলে মনে করেননি।
তবে এ ক্ষেত্রে যুগান্তর ঘটিয়েছেন চলচ্চিত্রের উঠতি নায়িকা পরিমণি। এই নায়িকা উঠতি হলেও আকাশ ছোয়া তাঁর জনপ্রিয়তা। ছবি মুক্তি পাওয়ার আগেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠা এবং অসংখ্য চলচ্চিত্রের নায়িকা হয়ে যাওয়ার উদাহরণ আমাদের দেশীয় চলচ্চিত্রে খুব একটা নেই। অবশ্য সম্প্রতি পরিমণির “স্বপ্নজাল” তাকে বাংলা চলচ্চিত্রের সুন্দরতম নায়িকার পাশাপাশি সুঅভিনয় শিল্পীর মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিতকরেছে।

যাই হোক, যে কথা বলছিলাম। এই নায়িকা সম্প্রতি তার প্রেমিককে নিয়ে প্রমোদ ভ্রমণে গেছেন ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানকার কিছু ছবি নিজের ফেইসবুকে পোস্ট করেছেন তিনি। ছবিগুলো রোমান্টিকতায় ভরপুর, অনেক ইঙ্গিতপূর্ণ। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, পরিমণি তার প্রেমিক তামিম হাসানকে নিয়ে সমুদ্রে-সুইমিংপুলে জলকেলীতে ব্যস্ত। ছবিতে তাদের শয়নকক্ষ, বিশেষ পাণীয়সহ নানা কিছুই রয়েছে। অনেকেই বলছেন, তারা বিয়ে করে ফেলেছেন। কিন্তু পরিমণি স্পষ্ট করে তা নাকোচ করে দিয়েছেন। আর এ কারণেই পরিমণিকে আরও বেশি সাহসী মনে হয়েছে।

ছবিগুলো দেখে আমার মনে হয়েছে পরিমণি যেন লিওনেল মেসি কিংবা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। মেসি-রোনাল্ডো যেমন তার বান্ধবীদের নিয়ে অবকাশ যাপন করতে যান, সেসব ছবি খবরের পাতায় ওঠে আসে… পরিমণিও যেন তার বন্ধুকে নিয়ে সে রকম অবকাশে গেছেন। আর কোনো রাখ-ঢাক না রেখে নিজেই তা পাবলিক করেছেন ফেইসবুকে ছবি পোস্ট করে।আমাদের দেশে ধর্মীয় ও সামাজিক সংস্কৃতি এই প্রমোদ-বিহারকে মেনে নেয় না। বাংলাদেশে যেন এটা মানায় না। কিন্তু কাউকে তো অচলনায়তন ভাঙতে হবে। কেউ যদি অচল ভাঙতে না চান তাহলেও আমার কোনো আপত্তি নেই। তাদের সাথে আমার বিরোধ নেই। কিন্তু আমি অচল ভাঙার পক্ষে। আপনি?

নোট: ছবিগুলো পরিমণির ভেরিফাইড
ফেইসবুক থেকে নেয়া।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here