ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পাঠদান ও অফিস কক্ষ, আতঙ্কে শিক্ষার্থী শিক্ষক

0
33
728×90 Banner

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার (বিজয়নগর) প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর হাজীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি প্রাচীণ ভবনের চারটি ঝুঁকিপূর্ণ কক্ষের মধ্যে চলছে শিশু শ্রেণী ও তৃতীয় শেণীর পাঠদান। পাশাপাশি প্রধান শিক্ষকের কার্যালয় ও শিক্ষকদের অফিস রুম ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। ফলে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করেছেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।
জানা গেছে, ১৯৩১ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পরে। বর্তমানে ঐতিহ্যবাহী স্কুলটির শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় তিনশত আট জন। গত ২০০৪/০৫ সালের নতুন দুই কক্ষের একটি ভবন নির্মিত হলেও ১৯৮৪ সালে আধাপাকা টিনের চাউনি দেওয়া ভবনটি জনাকীর্ণ অবস্থায় থাকলেও গত দুই বছর যাবত ভবনটি পিছনের সাইটের একটি পুকুরের পাড় ভেঙ্গে আধাপাকা ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের ভিতরে পানি ডুকে যায়।
শিক্ষার্থীরা জানায়, ভবনটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। তারা সব সময় পুকুরে ভবনটি বিলীন হবার ভয়ে ভয়ে ক্লাস করে বলে জানান।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ছাদেকুল ইসলাম বলেন, “আমাদের এই বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর শ্রেণি কক্ষের সংকট, শিক্ষকদের বসার জায়গা সংকট, প্রধান শিক্ষকের রুমের সংকট রয়েছে। তার কারনে উপজেলা প্রকৌশলী ব্যবহার না করার জন্য সুপারিশ করলেও বাধ্য হয়ে চারটি রুমের ভিতরে তিনটি ব্যবহার করতে হচ্ছে। আরেকটি সম্পর্ক ব্যবহারের অনুপযোগী। আর এই ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের নিচে আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অফিস ও পাঠদান কার্যক্রম চালাচ্ছি।”
তিনি যত দ্রুত সম্ভব এখানে নতুন ভবন তৈরি করে শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার অনুরোধ জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে শিক্ষা অফিসার শাহনেওয়াজ পারভীন বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বিষয়টি আমরা অবগত হয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে নতুন ভবনের জন্য অনুরোধ করে চিঠি পাঠিয়েছি।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here