নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখুন——– প্রতিমন্ত্রী জাহিদ জাহিদ আহসান রাসেল

0
67
728×90 Banner

জাহাঙ্গীর আকন্দ : যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং গাজীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেছেন, আমার নির্বাচনী এলাকায় অবৈধ টাকা ছিটানো হচ্ছে। বর্তমানে ভোটাররা অনেক সচেতন। তারা যাচাই বাছাই করেই নির্বাচনের দিন ভোট দিবেন। গাজীপুরে নির্বাচনী মাঠে অবৈধ টাকা ছিটিয়ে কোনো লাভ হবে না। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখুন।
তিনি বলেন, আমার রাজনীতিতে আসা বা এমপি-মন্ত্রী হওয়ার ঘটনাটি খুব সুখের নয়, অত্যন্ত বেদনাদায়ক ঘটনা। আমার পিতা শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার এমপিকে ৫৪ বছর বয়সে প্রকাশ্য দিবালোকে ব্রাশ ফায়ার করে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। আপনারাই আপনাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আমাকে বারবার সংসদ সদস্য বানিয়েছেন। আমি আমার প্রয়াত পিতার আদর্শ বুকে ধারণ করে আপনাদের সেবা করে যাচ্ছি। আমি আমার জীবনে কোনো অন্যায় ও অনৈতিক কাজ করিনি। আপনাদের বিপদে-আপদে এমনকি করোনাকালীন সময়েও আমি আপনাদের পাশে ছিলাম। আমার বিশ্বাস আপনারা ভালোবেসে এবারও নৌকা প্রতীকে আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।
তিনি ও বলেন, আমার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা কে কোথা থেকে এসেছে তাদের ব্যাপারেও খোঁজ খবর নিবেন। আমার বিশ্বাস যারা সমাজের উপকারে আসবে তাদেরই ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করা উচিত। ভোট আপনাদের পবিত্র আমানত। আগামী ৭ জানুয়ারি সেই পবিত্র আমানত কাকে দিবেন সেই বিচারের ভার আপনাদের কাছে দিয়ে গেলাম।
শনিবার দুপুরে টঙ্গী পাইলট স্কুল এন্ড গার্লস কলেজ মাঠে আয়োজিত বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল, নবীন বরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গভর্ণিং বডির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে ও শিক্ষক প্রতিনিধি আবু জাফর আহমেদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ৫৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিল্লাল হোসেন মোল্লা, সিটি করপোরেশনের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরন, আওয়ামী লীগ নেতা কাজী ইলিয়াস আহমেদ, পাইলট স্কুল এন্ড গালর্স কলেজের অধ্যক্ষ মো. আলা উদ্দিন মিয়া, সাবেক অধ্যক্ষ আশরাফুল আলম, সাবেক কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন মোল্লা, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মোশিউর রহমান সরকার বাবু প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here