বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস রোগের কোনো প্রভাব নেই—–স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী

0
94
728×90 Banner

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : চীনের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বাংলাদেশে এ রোগের কোনো প্রভাব নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।
মন্ত্রী বলেন, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে তাদেরকে অতি দ্রুত ফিরে আনার ব্যবস্থা আমরা করেছি। চীন থেকে যারা দেশে ফেরত আসছে আমাদের জানা মতে তারা কেউই কারোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নয়।
আজ শুক্রবার (৩১ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সাথে এক প্রেসব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় প্রেসব্রিফিংয়ে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আশাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা আবুল কালাম আজাদ,বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের অন্যান্যরা উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, চীনের উহান প্রদেশ থেকে প্রায় ৩৬১ জন বাংলাদেশে ফিরে আসার জন্য আবেদন জানিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাদেরকে অতি দ্রুত দেশে ফিরে আনার ব্যবস্থা আমরা করেছি।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রথমে তাদেরকে আশকোনার হজ ক্যাম্পে রাখা হবে। সেখানে তারা ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে থাকবে। এসময় তারা পরিবারের সদস্যসহ কারো সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না। কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে একজন সন্দেহজনকভাবে ভর্তি রয়েছে। তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে সেটা শেষ হলেই বোঝা যাবে।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, হজ ক্যাম্পে তাদেরকে আলাদাভাবে রাখা হবে। হজ ক্যাম্পে তারা ১৪ দিন থাকবেন, যদি কেউ অসুস্থ হয় তাহলে চিকিৎসার জন্য সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ও কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইন ওয়ার্ড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। নিরাপত্তা প্রদানের জন্য পুলিশ ও সেনাবাহিনী সর্বদা মোতায়েন থাকবে।
যারা আজ চীন থেকে দেশে ফিরছেন তাদের পরিবার ও আতœীয়-স্বজনদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রী বলেন, বিদেশ ফেরত দেখার জন্য আত্মীয়-স্বজনরা ব্যাকুল হবে সেটাই স্বাভাবিক। আমি অনুরোধ করবো কেউ তাদের সঙ্গে দেখা করতে চাইবেন না। তারা কেউ কারো সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না। ১৪ দিন তাদেরকেকে পর্যবেক্ষণের জন্য রাখা হবে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জাহিদ মালেক বলেন, আজ শুক্রবার বিকেল পাঁচটায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের (বিজি-৭০০১) একটি বিশেষ ফ্লাইট চীনের উহানে বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে সেখানে যাচেছন। শুক্রবার আনুমানিক রাত দুইটার মধ্যে তাদেরকে নিয়ে বাংলাদেশে এই ফ্লাইটটি ঢাকায় এসে অবতরণ করবে।
তিনি আরও বলেন, ৩৬১ জনকেও প্রটেকটেড অবস্থায় বাংলাদেশে নিয়ে আসা হবে। এছাড়া অ্যাম্বুলেন্সেরের সকল সুযোগ-সুবিধাও থাকবে এই বিমানে। ৫ জন চিকিৎসক থাকবে যারা সম্পূর্ণরূপে প্রটেকটেড থাকবে।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, চীনে প্রায় ৫ হাজারেরও অধিক মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে প্রায় ১৭০ জনেরও বেশি মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে। এছাড়া ১৭টি দেশে এই রোগটি ছড়িয়ে পড়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here