আবারও হামলা-ভাঙচুরের শিকার জাহাঙ্গীর ও তার মা

0
75
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক : প্রচার চালাতে গিয়ে প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়েছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনে দেয়াল ঘড়ি প্রতীকের মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুন ও তার ছেলে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। ওই সময় প্রতিপক্ষের হামলায় কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ছাড়া গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে। শনিবার টঙ্গীর ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডের গরুহাটা এলাকায় বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টেবি মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুন ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম টঙ্গীর মধুমিতা রোড, আরিচপুর, বউবাজার ও জামাই বাজার এলাকায় প্রচারণা শেষ করে ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে প্রবেশ করে। এ সময় ওই ওয়ার্ডে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খানের বাড়ির কাছে গরুহাটা এলাকায় গেলে নৌকার মিছিল নিয়ে বেশ কিছু লোক টেবিল ঘড়ির প্রার্থী ও কর্মীদের ঘিরে ফেলে। প্রায় দেড় ঘণ্টা ঘিরে নৌকার লোকজন মিছিল করতে থাকে। এ সময় গাড়ি ভাঙচুর ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। আতংকে দোকানপাট ও যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় প্রতিপক্ষের হামলায় কমপক্ষে ১০ জন কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে টেবিল ঘড়ি প্রতীকের পক্ষের লোকজন। সংবাদ পেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ জায়েদা খাতুন ও তার ছেলেকে উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়ার পর জাহাঙ্গীর আলম তার মাকে নিয়ে টঙ্গী পূর্ব থানায় প্রবেশ করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয় ও তাদের গাজীপুরে নিজ বাসায় পাঠিয়ে দেয়।
এ বিষয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষ থেকে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউল্লাহ মন্ডল বলেন, আওয়ামী লীগের কেউ কোনো হামলা করেনি। এটি জাহাঙ্গীরের নাটক।
এ বিষয়ে টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি আশরাফুল ইসলামকে ফোন করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here