করোনার ঝুঁকিপূর্ণ সময়ে ফ্রিজ ব্যবহারে সাবধানতা

0
132
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর ডেস্ক : করোনা ভাইরাস ৪ ডিগ্রি তাপমাত্রার নিচে আরামবোধ করে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ঘরে ঘরে ফ্রিজ হলো করোনার নিরাপদ আবাসস্থল।
আমরা প্রতিনিয়ত বাজার থেকে যেসব জিনিস বাসায় নিয়ে আসি যেমন মাছ, মাংস, সবজী ইত্যাদি এগুলোর মাধ্যমে ভাইরাসটি বাহিত হয়ে একবার যদি ফ্রিজে ঢুকে। তারপর সেখানে ১৪ দিন আরামে বেঁচে থাকবে। আমরা যখন সেই জিনিস বের করে খাবো তখন আক্রান্ত হবো। তাই ফ্রিজ বিপদজনক। অথচ ফ্রিজ নিত্য প্রয়োজনীয়, বাদ দেওয়া মুশকিল।
এখন করণীয় কী?
১. ফ্রিজ খোলার সময় নাক মুখ দূরে রাখতে হবে। সম্ভব হলে মাস্ক পড়তে হবে।
২. যতবার ফ্রিজে হাত দিবেন ততবার অন্য কিছু স্পর্শ করার আগে সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।
৩. ফ্রিজের জিনিস ১০০ ডিগ্রি তাপের উপরে ভালভাবে রান্না করে খেতে হবে।
৪. ফ্রিজ থেকে বের করে কাঁচা কোন জিনিস খাওয়া যাবে না। যেমন- শশা, গাজর, ফল, কাঁচা মরিচ, আচার ইত্যাদি।
৫. ফ্রিজে রাখা রান্না করা খাবার পুনরায় উচ্চ তাপে জ্বাল না দিয়ে খাওয়া যাবে না।
৬. মাছ-মাংস, সবজি, রান্না করা খাবার আলাদা করে রাখতে হবে।
৭. ডিম আপাতত না রাখাই ভাল।
৮. সপ্তাহে অন্তত এক বার গরম পানি দিয়ে ফ্রিজ সম্পূর্ণ পরিস্কার করতে হবে।
৯. সর্বোপরি ধরেই নিবেন ফ্রিজের মধ্যে করোনা ভাইরাস আছে, সেই ভাবে সাবধানতা অবলম্বন করুন।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × 2 =