গাজীপুরে ভূল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু

0
404
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: গাজীপুরের রাজবাড়ি রোডের কেয়ার এন্ড কিউর হাসপাতাল এন্ড ডায়গনষ্টিক সেন্টারে ভূল চিকিৎসায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনার পর অভিযুক্ত কেয়ার এন্ড কিউর হাসপাতাল এন্ড ডায়গনষ্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষ পালিয়ে গেছে।
নিহতের নাম জাহানার আক্তার সুমি (২৫)। তিনি মহানগরের জয়দেবপুরের কাজী বাড়ি এলাকার জরিপ হোসেনের স্ত্রী এবং শ্রীপুর উপজেলার লোহাগাছিয়া গ্রামের জয়নাল আবেদিনের মেয়ে। ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টায় দফায় দফায় চলছে সালিশ বৈঠক।
নিহতের স্বজনরা জানায়, মহানগরের রাজবাড়ি রোডের ওই ক্লিনিকে মঙ্গলবার রাতে সিজার অপারেশনের মাধ্যমে প্রসূতি সুমির একটি পূত্র সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু কর্তৃপক্ষের ভূল চিকিৎসায় রোগীর অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় প্রেরন করা হয়। মূমূর্র্ষ অবস্থায় হাসাপাতাল কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে তাকে ঢাকায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের ভূল চিকিৎসায় সুস্থ্য প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন। এদিকে, ওই ক্লিনিকের পোষ্ট অপারেটিভ ব্যবস্থা নেই। উপস্থিত ছিলেন না কোন দক্ষ গাইনী ডাক্তারও। জেলার কোন ক্লিনিকে পোষ্ট অপারেটিভ ব্যবস্থা বা সিসিইউ বা আই সিইউ নাই বলেও দাবী স্থানীয়দের।
নিহত সুমির পিতা জয়নাল আবেদিন জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ক্লিনিকে মেয়ের সন্তান প্রসবের জন্য ভর্তি করি। তখন হাসপাতাল থেকে বলা হয় ডাক্তার রাত ১১টায় আসবে, আপনী টাকা নিয়ে আসেন। পরে তিনি বাড়িতে আসেন টাকা নিতে। রাত ১১টায় ডাক্তার এসে সিজার করা হয় এবং বাচ্চা বের করে আননে কিন্তু বাচ্চার মাকে ভূল চিকিৎসায় মেরে ফেলা হয়।
কেয়ার এন্ড কিউর হাসপাতাল এন্ড ডায়গনষ্টিক সেন্টার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজিজুল হাকিম বলেন, গাজীপুরের কোন হাসপাতাল বা ক্লিনিকে পোষ্ট অপারেটিভ ব্যবস্থা বা সিসিইউ বা আইসিইউ নাই এবং আমাদের এখানেও নেই।
শ্রীপুর থানার ওসি জাবেদুল ইসলাম জানান, এব্যাপারে কোন অভিযোগ পাননি তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here