টঙ্গীতে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের জমি দখলের চেষ্টা

0
28
728×90 Banner

জাহাঙ্গীর আকন্দ : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৩ নং ওয়ার্ড কাঠালদিয়া এলাকায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিমের আবাদি জমি দখলের অপচেষ্টা করছে সাবেক কমিশনার সেলিম্ মিয়াঁ ও তার ভাই মামুন। এঘটনায় গত ৫ই ডিসেম্বর সোমবার রাতে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের পেডে (টঙ্গী অঞ্চল) টঙ্গী পশ্চিম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন কাউন্সিলর সোলেমান হায়দার। তবে পুলিশ বলছে এই ঘটনার কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি।
অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, সোলেমান হায়দারের জমি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে হঠাত করে গত ০৫/১২/২২ ইং তারিখ সেলিম মিয়া ও তার ভাই নূর মোহাম্মদ মামুন লোকজন নিয়ে মাটি ফেলা শুরু করে। ঘটনাটি জানার পর সেলিম ও তার ভাই মামুন আমার ফ্যাক্টরীর পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা ইতিমধ্যে ব্যাহত করেছে। মামুন স্বীকার করেছে এখানে তাদের কোন জমি নেই। শুধু মাত্র একটা বড় ধরনের ঝগড়া সৃষ্টির জন্য তারা জোড়পূর্বক জমি দখলের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। বিবাদী আমার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ। তাই সরজমিনে আর ঝগড়া বিবাদ না বাড়িয়ে আমি আইনি সহযোগিতা কামনা করছি।
স্থানীয় এলাকাবাসী ওভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য রাজিব হায়সার সাদিমের সাথে কথা বলে জানাযায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম অসুস্থতার কারণে দীর্ঘদিন যাবত একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সেলিম ও মামুনের সাথে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সঙ্গে রাজনৈতিক বিরোধ চলছিলো। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৫ই ডিসেম্বর সেলিম ও মামুনের নেতৃত্বে কাঠালদিয়া এলাকার ইঙ্গিনিয়ার আরিফ তাদের ভারাটে লোকজন নিয়ে অন্তত ৪০-৫০ ট্রাক মাটি আবাদি জমিতে ফেলেছে। সকাল আনুমানিক ১১ ঘটিকার সময় আমাদের কেয়ারটেকার ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পায় মামুনের নেতৃত্বে জমিতে মাটি ভরাট করা হচ্ছে। পরে কেয়ারটেকার শের আলী জমির মালিককে অবগত করেন।
নুর মোঃ মামুন বলেন, মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। আমি ও আমার ভাই এ বিষয়ে কিছু জানিনা। মাটি ফেলার পরে সাইফুলের মাধ্যমে এই ঘটনা জানতে পারি। মূলত ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল এ কর্মরত ইঞ্জিনিয়ার আরিফ ওই জমিতে মাটি ফেলেছে। নিচে তার জমি রয়েছে। সে তার জমিতে গিয়ে মাটি ভরাট করার জন্য সোলেমান ভাইদের জমিতে মাটি ফেলেছে। আমরা এই এলাকার স্থানীয় আমাদের জমি দখল করতে হয়না।
এ বিষয়ে ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল এ কর্মরত ইঞ্জিনিয়ার আরিফ বলেন, আমি ওই জমিতে মাটি ফেলেছি। আমার ভুল হয়ে গেছে আমি কথা বলে মাটি জমি থেকে সরিয়ে নিবো।
এবিষয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি শাহ্ আলম বলেন, এঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here