পূবাইলে কিশোরীকে ঘরে আটকে রেখে গণধর্ষণ, আটক ০২

0
49
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক : গাজীপুর মহানগরের পূবাইল থানাধীন ৪০নং ওয়ার্ডের মাজুখান এলাকায় কিশোরী (১৫) কে গণধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। থানা সূত্রে জানা যায় যে, গত ১১/০৯/২০২০ইং তারিখে রাত ১১:০০ টার দিকে ভিকটিমের বাসা বাড়ীর মালিক সেলিনা জোরপূর্বক অন্য একটি রুমে প্রবেশ করায়। আসামী আবু হানিফ এবং শাহ আলম রুমে অবস্থান করিয়া ঘরের দরজা আটকিয়ে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষন করে। পরবর্তী সময়ে হানিফ ও শাহ আলম ঘর থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর আরও দুইজন পালাক্রমে ধর্ষন করে। পূবাইল থানার (এস.আই) জামিল উদ্দিন রাশেদ জানান যে, ভিকটিম কিশোরী মাজুখান এলাকায় ভাড়া থেকে একটি টেইলার্স এর দোকানে কাজ করত। বাড়ীর মালিক সেলিনা খারাপ প্রকৃতির লোক। তার বাড়ীর ভাড়াটিয়া কিশোরীকে জোরপূর্বক রুমে আটকে রেখে গণধর্ষনের ব্যবস্থা করে দেয়। অভিযোগ পাওয়ার পর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুইজনকে আটক করি। আটকৃত আবু হানিফ (৪৬) হলো গাজীপুর জেলার টঙ্গী পূর্ব থানার ফকির মার্কেট এলাকার মৃত আব্দুল আলিমের ছেলে। অপর আসামী শাহ আলম (৩৭) মাদারীপুর জেলার কালকিনি থানার হেনায়েত নগর গ্রামের ইস্কান্দার আলী সরদারের ছেলে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় আসামী দুজন হানিফ ও শাহ আলম নাচ গানের পেশায় জড়িত। নাচ গানের সূত্র ধরিয়া বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মেয়েদের শ্লীলতাহানী ঘটিয়েছে বলে জানা যায়। পূবাইল থানার অফিসার ইনচার্জ নাজমুল হক ভূইয়া জানান যে, গণধর্ষনের ব্যাপারে পাঁচ জনকে আসামী করে মামলা হয়েছে। দুইজনকে আটক করে গাজীপুর কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী তিনজনকে আটকের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here