প্রস্তুতি কাজ চলছে দ্রুত গতিতে টঙ্গীতে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা :প্রথম পর্ব ১৫ ফেব্রুয়ারী

0
452
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে চলছে বিশ্ব ইজতেমা প্রস্ততির কাজ। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব ইজতেমাকে সামনে রেখে ময়দানের প্রস্তুতি কাজ চলছে দ্রুত গতিতে। প্রতিবছর ৩দিন করে দুই দফায় হলেও এবারই ২দিন করে বিরতিহীনভাবে দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। প্রথম পর্বে ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি ওলামামাশায়েক তাবলীগ জামাত বাংলাদেশের শীর্ষ মুরুব্বি ও কাকরাইল জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা জোবায়ের আহমেদের অনুসারী মুসল্লিরা অংশ নিবেন। ১৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার দুপুরে আখেরি মোনাজাতে অংশ নিয়ে প্রথমপর্বে আগত মুসল্লিরা রাতের মধ্যে ময়দান ত্যাগ করবেন। পরে মাওলানা সা’দ আহমাদ কান্ধলভী পন্থী অনুসারী মুসল্লিরা আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি রোববার বাদ ফজর থেকে দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় অংশ নিবেন। ১৮ ফেব্রুয়ারি মধ্যাহ্নের পূর্বে যেকোনো এক সময় আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে দুই পর্ব ২০১৯ সালের বিশ্ব ইজতেমা। প্রতি পর্ব ইজতেমা কার্যক্রম শেষে জিম্মাদারগণ ময়দানের দায়িত্ব প্রশাসনের কাছে বুঝিয়ে দিয়ে যাবেন।
গতকাল শনিবার ইজতেমা ময়দান সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ইজতেমাকে সামনে রেখে এগিয়ে চলছে সবধরণের প্রস্তুতির কাজ। স্কুল-কলেজ ও মাদরাসার ছাত্রসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ স্বেচ্ছাশ্রমে ময়দানে কাজ করছেন। প্যান্ডেল তৈরির কাজ, রাস্তা মেরামত, মাইক টানানো, টয়লেট পরিষ্কার-পরিচ্ছন, ময়দানের আগাছা পরিষ্কারের কাজ করছেন আগত মুসল্লিরা। ইতিমধ্যে প্রায় ৫০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে বিশ্ব ইজতেমা আয়োজক কমিটি সূত্রে জানা গেছে।
ঢাকার যাত্রাবাড়ি এলাকার আনোয়ারুল ইসলাম ( হালকা নং-৪০৭) দেড়শ’ জন ইজতেমার সাথী ভাই নিয়ে ময়দানে কাজ করতে এসেছেন। তিনি বলেন, আল্লাহর মেহমানরা ইবাদত বন্দেগি করতে আসবেন। তারা যেন সুন্দরভাবে ইবাদত বন্দেগি করতে পারেন সেই দিক খেয়াল রেখে ময়দানের কাজ করে যাচ্ছি। টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকার মুসল্লি মো. মাজহারুল ইসলাম জানান, বিদেশী মেহমানদের কামরা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করছি। যাতে বিদেশী মেহমানরা ইজতেমা ময়দানে এসে কোন প্রকার কষ্ট না পান।
যোগাযোগ করা হলে বিশ্ব ইজতেমা ময়দানের (সাফাই) পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন কমিটির জিম্মাদার ফকির আতাউর রহমান জানান, আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে টঙ্গীতে শুরু হতে যাচ্ছে ২০১৯ সালের বিশ্ব ইজতেমা। এ উপলক্ষে চলছে প্রস্তুতিকাজ। ইতিমধ্যে প্রায় ৫০ ভাগের মতো ময়দানের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ১৬ ফেব্রæয়ারি দুপুরের আগে যেকোনো একসময় আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে প্রথমপর্বের ইজতেমা। তবে শুক্রবার থেকে ইজতেমা শুরু হলেও বৃহস্পতিবার বাদ ফজর থেকেই আগত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে আ’ম শুরু হবে।
ময়দানের সার্বিক প্রস্তুতির কাজ করেছেন মুসল্লি¬রা। ঢাকা যাত্রাবাড়ি থেকে একশ চল্লিশ জনের একদল মুসল্লি¬ ময়দানে কাজ করতে দেখা গেছে। ময়দানে কাজ করতে আসা মুসল্লি নাজমুল হক (৪০) জানান, ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের খেদমতের উদ্দেশ্যেই মাঠে আশা হয়েছে । তিনি বলেন, মাঠের প্রস্তুতি কাজ করতে প্রতি বছর আসি। আরেক মুসল্লি আতাউর রহমান(৬০) জানান, আল্ল¬াহকে রাজি খুশি করার জন্য ২০০১ সাল থেকে ইজতেমা মাঠে কাজ করছি।
তিনি আরও বলেন, আমরা সবসময় দুনিয়াবী কাজে মগ্ন থাকি। আখিরাতের নেকী হাসিলের উদ্দেশ্যে ইজতেমা ময়দানে স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করতে এসেছি। ঢাকার মিরপুর থেকে ২শ মুসল্লি আসছে ইজতেমা মাঠে সেচ্চাশ্রমে কাজ করতে। ওই দলের একজন ছাত্র মজিানুর রহমান বলনে, ইজতমো ময়দানে আসার উদ্দশ্যে হলো আল্লাহকে রাজি খুশি করা। আখরোত সর্ম্পকে জানা। তার সাথে আসা সবাই বলেছেন একই কথা। ৬৫ বছরের আবদুল হাই বলেন এ দুনয়িা হচ্ছে ধোকার ঘর। আমরা জীবনে মানুসকে দোকা দিয়েছি সেই গুনাহ থেকে মাফ পাওয়ার জন ইজতমো মঠে এসেছি ।
উল্লেখ্য, তাবলিগ অনুসারির সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় ময়দানে স্থান সংকুলান না হওয়ায় বিগত ২০১১ সাল থেকে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা তিনদিন করে দুই পুর্বে অনুষ্ঠিত হয়ে আসাছিল। এবার জোবায়ের ও সা’দ গ্রুপের মধ্যে সমস্যা দেখা দেয়ায় এবারও দুই র্পবে ইজতমো হচ্ছে। প্রথম পর্ব আগামী ১৫ ফের্রুযারী শুরু হয়ে ১৬ ফের্রুযারী জোহরের নামাজের আগে আখেরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে ওলামাশায়েকে (জোবায়ের ) গ্রুপের বিশ্বইজতেমা। ১৭ ফের্রুযারী শুরু হবে সা’দ গ্রুপের ইজতেমা ১৮ ফের্রুয়ারী আখেরি মোনাজতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ২০১৯ সালের দুই গ্রুপের দুই পর্বের বিশ্ব ইজতেমা। প্রথম পর্বের ইজতমো ময়দানরে জম্মিাদার ফকির আতাউর রহমান জানান,আগামী ১৫ ফের্রুয়ারী শুরু হবে বশ্বি ইজতমোর প্রথম র্পব। এ উপলক্ষে ইজতমোর প্রস্তুতি দ্রুত এগয়িে চলছ।ে প্রতি বছরের মতো এবারও আগত মুসল্লরিা জলোওয়ারী খত্তিায় অবস্থান করবে। তবে এবারই বিরতিহীনভাবে দুইদিন করে দুইপর্বে বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
মঞ্চ তৈরি : ইজতেমা উপলক্ষে ময়দানের পশ্চিম পাশে বিদেশী মেহমানদের জন্য তৈরি টিনসেট সংলগ্ন পঁশ্চিম কোনে লোহার পাইপ দিয়ে মঞ্চ তৈরির কাজও চলছে দ্রুত গতিতে।
বিদেশী মেহমানদের তাঁবু তৈরি : বিদেশী মেহমানদের জন্য টিন দিয়ে তৈরি তাঁবুতে বিগত বছরে ন্যায় এবারও পাকা টয়লেট তাদের সুবিধার্থে প্রায় তাবুঁগুলো উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে আরও আরামপদ করে তোলা হবে বলে ইজতেমা প্রস্তুতি কাজে নিয়োজিত জোবায়ের অনুসারি মুরুব্বীরা জানান।
ডাস্টবিন : ইজতেমা চলাকালে ময়দানে আগত মুসলি¬দের ফেলানো উচ্ছিষ্ট ফেলার জন্য ময়দানের চারপাশে রিংয়ের তৈরি পোর্টএ্যাবল ডাস্টবিন স্থাপন করা হচ্ছে। যাতে ময়লা আর্বজনা যেখানে সেখানে না ফেলে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলতে পারে।
এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বিশ্ব ইজতেমা ময়দানের শীর্ষ মুরুব্বি ও সূরা সদস্য মাওলানা মেজবাহ উদ্দিন বলেন, ময়দানের প্রস্তুতিকাজ শেষ করতে হাতে সময় খুবই কম। তাই ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ময়দানের প্রস্তুতির কাজ সম্পন্ন করতে আমরা এখন যুদ্ধাবস্থায় আছি। আমার সাথে মাওলানা মাহফুজুল ইসলাম, মাওলানা হাসনাত ও আবুল হাশেম রয়েছেন। আমরা চারজন সূরা সদস্য মাশোয়ারা করে ময়দানের প্রস্তুতিকাজ করছি। আশা করি, আগামী ১৫ তারিখের আগেই প্রস্তুতিকাজ শেষ হবে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here