বায়ুদূষণ: ঢাকাবাসীকে রক্ষায় অ্যালার্ট সিস্টেম চালু করতে চিঠি

0
82
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক : বায়ুদূষণের ভয়াবহতা থেকে ঢাকাবাসীকে রক্ষায় সতর্কতা বা অ্যালার্ট সিস্টেম চালু করতে আদালতের নির্দেশ প্রতিপালনের জন্য সরকারকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা)।
বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর এ চিঠি পাঠানো হয়েছে।
পরে বেলার পক্ষ থেকে জানানো হয়, ঢাকা মহানগরীর বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণে বেলা হাইকোর্টে রিট করে। গত বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণ ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় বিবাদদের ব্যর্থতা কেন বেআইনি, আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ও জনস্বার্থ পরিপন্থি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। একইসঙ্গে একটি সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনার মাধ্যমে বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণ এবং বায়ুর মান উন্নয়নের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না তাও জানতে চেয়েছেন আদালত। এ ছাড়া বায়ুদূষণের প্রধান উৎসসমূহ চিহ্নিতকরণ ও তা হ্রাসের সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং অস্বাস্থ্যকর, অতি অস্বাস্থ্যকর ও বিপজ্জনক বায়ু থেকে জনসাধারণকে রক্ষায় অ্যালার্ট সিস্টেম চালুর নির্দেশ দেন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও যুক্তরাষ্ট্রের পরিবেশবিষয়ক সংস্থা ইপির হিসাব অনুযায়ী, কোনো শহরের বায়ুর মানের সূচক ১৫১-২০০ হলে তাকে অস্বাস্থ্যকর বলা হয়। এটি বিশেষ শ্রেণির নগরবাসীর স্বাস্থ্যের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে যেমন শিশু, বৃদ্ধ ও বক্ষব্যাধিতে আক্রান্ত ব্যক্তিরা। বায়ুর মান বা একিউআই স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে তা খুবই অস্বাস্থ্যকর এবং তা স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়। এ অবস্থায় শিশু, প্রবীণ ও অসুস্থ রোগীদের বাড়ির ভেতরে এবং অন্যদের বাড়ির বাইরের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে। বায়ুর মান ৩০০-এর বেশি থাকা মানে ওই স্থানের বায়ু ‘বিপজ্জনক’ যা সবার জন্য ক্ষতিকর।
আইকিউ এয়ারের তথ্য অনুযায়ী গত ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা বায়ুদূষণের শীর্ষ নগরী হিসেবে চিহ্নিত হয় যেখানে বায়ুর মান ছিল ৩২৫। বায়ুদূষণ পর্যবেক্ষণকারী সুইজারল্যান্ডভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা এয়ার ভিজ্যুয়ালের পর্যবেক্ষণ (এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স) অনুযায়ী গত এক সপ্তাহের অধিক সময় ধরে রাজধানী ঢাকার বায়ুর মান অস্বাস্থ্যকর, অতি অস্বাস্থ্যকর ও ‘বিপজ্জনক’ পর্যায়ে রয়েছে।
চিঠিতে বলা হয়েছে, আইনি বিধান ও আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ক্রমাগত অস্বাস্থ্যকর, অতি অস্বাস্থ্যকর ও বিপজ্জনক বায়ু সেবন থেকে জনসাধারণকে রক্ষায় কোনো রকম সতর্কতা বা অ্যালার্ট সিস্টেম চালু করা হয়নি, যা আইন ও আদালতের আদেশের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন ও আদালত অবমাননার শামিল।
তাই চিঠিতে পরিবেশ আইনবিদ সমিতি ঢাকার বায়ুর মান অস্বাস্থ্যকর, অতি অস্বাস্থ্যকর ও বিপজ্জনক পর্যায়ের ক্ষেত্রে আইন ও আদালতের আদেশ অনুযায়ী সতর্কতা বা অ্যালার্ট সিস্টেম চালুসহ আদালতের সব নির্দেশ যথাযথ প্রতিপালনের অনুরোধ জানিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here