ভাঙ্গা মঞ্চ থেকে উঠে নেতাকর্মীদের ওপর ক্ষোভ ঝাড়লেন ওবায়দুল কাদের

0
33
728×90 Banner

ডেস্ক রিপোর্ট: ছাত্রলীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেছেন কয়েকজন নেতা-কর্মী। এ সময় মঞ্চে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
এ ঘটনার পরে ওবায়দুল কাদের ক্ষোভের সুরে বলেন, এতো নেতা কেনো? নেতা উৎপাদনের এতো বড় কারখানা আমাদের দরকার নাই। স্টেজভর্তি নেতা থাকে, আমাদের স্মার্ট কর্মী দরকার।
তিনি বলেন, স্টেজ ভেঙে পড়েছে, এটা স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। তবে আমি বলবো, এইযে নেতাদের মঞ্চে ওঠা, এতো নেতা আমাদের দরকার নাই। যে কোনো মঞ্চে গেলে সামনের লোকের থেকে মঞ্চে লোক বেশি। কেন? এতো নেতা কেন?
শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শোভাযাত্রাপূর্ব অনুষ্ঠানে এই ঘটনা ঘটে।
বক্তব্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশে আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হবে। ঘুরে দাঁড়ানো এখন আদের চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ আমাদের অতিক্রম করতে হবে।’
ছাত্রলীগের কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার তাগিদ দিয়ে সংগঠনটির সাবেক সভাপতি কাদের বলেন, ‘ছাত্রলীগের আজ শপথ নিতে হবে৷ কমিটি হয়েছে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক। বাকি কমিটি করতে হবে৷ অনেক নেতাকর্মী অপেক্ষায় আছে। দেরি করার সময় নেই। তাদের প্রোভাইড করুন। দেরি করার সুযোগ নেই।’
রাজনীতিতে কমিটমেন্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে আখ্যা দেন আওয়ামী লীগের তিনবারের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আমি বঙ্গবন্ধুর পুষ্পিত আদর্শনের সৈনিক। আমি শেখ হাসিনার একজন নিবেদিতবার কমিটেড কর্মী। এটাই আর পরিচয়।’
মঞ্চ ভেঙে পড়ে যাওয়ার সময় ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে আরও ছিলেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এনামুল হক শামীম, নজরুল ইসলাম বাবু, মাহফুজ হায়দার চৌধুরী, মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সিদ্দিকী নাজমুল আলম, মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, এস. এম জাকির হোসাইন, গোলাম রাব্বানী, সদ্য সাবেক কমিটির আল-নহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, বর্তমান সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাসহ অর্ধশতাধিক নেতা।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here