ভুল চিকিৎসার অভিযোগ কোনাবাড়ীর ইউনাইটেড হাসপাতালের বিরুদ্ধে

0
243
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ী ইউনাইটেড হাসপাতালের বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ উঠেছে।
গত শনিবার (৫ জানুয়ারি) সেলিনা বেগম (২৫) নামে ৩ মাসের এক গর্ভবতী নারী ওই হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাম করতে যায়। আল্ট্রাসনোগ্রাম রিপোর্টে সেলিনা বেগমের গর্ভের সন্তান দেড় মাস আগে নষ্ট হয়ে গেছে বলে জানান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাড়াতাড়ি ওয়াশ না করলে রোগীর বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে বলে জানানো হয় হাসপাতাল থেকে।বিষয়টি সেলিনা বেগমের স্বামী আবুল হোসনের কাছে সন্দেহজনক হলে একদিন পর ওয়াশ করাবে বলে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যায়।ঠিক তার দুইদিন পর ৭ জানুয়ারি কোনাবাড়ী নামক একটি ক্লিনিকে আল্ট্রাসনোগ্রাম করা হলে দেখা যায় সেলিনা বেগমের গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়নি।
বিষয়টি জানাজানি হলে কোনাবাড়ী ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সেলিনা বেগমের স্বামী আবুল হোসেনকে হাসপাতালে ডেকে নিয়ে গিয়ে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চায় এবং অন্য কাউকে না জানানোর জন্য তাদের ম্যানেজ করার চেষ্টা করে। পরে আবুল হোসনের কাছ থেকে আল্ট্রাসনোগ্রামের রিপোর্ট নিয়ে ছিড়ে ফেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।আবুল হোসনের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি যোগফলকে বলেন, কি করবো বারবার আমার কাছে ক্ষমা চায়। আল্লায় আমার স্ত্রী সন্তানরে নিজ হাতে বাচিয়েছেন। আমার মতো আর কোন সাধারণ মানুষ যাতে বিপদে না পরে।
এ বিষয়ে কোনাবাড়ী ইউনাইটেড হাসপাতালের এমডি সেলিম আজাদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন সেলিনা বেগমের বিষয়টি ভুলবশত হয়ে গেছে। এইটা নিয়ে এতো বাড়াবাড়ীর কিছু নাই। আমরা সেলিনা বেগমের স্বামী আবুল হোসেনের কাছে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছি। আমরা বিষয়টি তাদের সাথে মিট করেছি।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here