মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রেরণা ও শক্তির উৎস—–নাসির উদ্দীন বুলবুল

0
102
728×90 Banner

ডেইলি গাজীপুর প্রতিবেদক: জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটির মহাসচিব নাসির উদ্দীন বুলবুল বলেছেন,মহান মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রেরণা ও শক্তির উৎস। মুক্তিযুদ্ধের কথা এলেই বার বার চলে আসে বঙ্গবন্ধুর কথা। তৎকালীণ পূর্ব বাংলা এবং পরবর্তী স্বাধীন বাংলাদেশে একমাত্র জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর হাত ধরেই সংবাদপত্র ও স্বাধীন সাংবাদিকতার প্রসার ঘটেছে। মহান স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি ও মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে বুধবার ( ৩১ মার্চ ) গাজীপুরের গাছা থানা প্রেস ক্লাবে আয়োজিত আলোচনা সভা ও মিলাদ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে গাছ থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ আমীর আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইসমাইল হোসেন । সাংবাদিক মোঃ জামাল উদ্দিন মাস্টার ও রেজা নুর ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক আহমেদ রেজা, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ শাহিন, হাজী আহমদ আলী,সাংবাদিক মাহবুব চৌধুরী, রওশনারা মিলি, মোঃ আব্দুল হালিম মাস্টার, শরিফুল ইসলাম, মোঃ রাকিব হাসান, মোহাম্মদ সোহেল রানা সহ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন গাছা থানা প্রেস ক্লাবের সকল সদস্য বৃন্দ ।


প্রধান অতিথি নাসির উদ্দীন বুলবুল আরো বলেন,বঙ্গবন্ধু তার গোটা রাজনৈতিক জীবন সাংবাদিক ও সংবাদপত্রের সঙ্গে সম্পৃক্ত রেখে ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর মতো করেই তার সুযোগ্য উত্তরসূরী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সংবাদপত্রের জগতের মানুষদের প্রতি উদার মানোভাব দেখিয়ে যাচ্ছেন। সংবাদপত্র এবং সাংবাদিকদের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।মুক্তিযুদ্ধের লক্ষ্য ছিল অসাম্প্রদায়িক, শোষণমুক্ত সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করা। এসকল লক্ষ্যসমূহ বাস্তবায়নের জন্যে বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে আসছেন। তাঁর মেধা, শ্রম, সততা, দূরদৃষ্টি ও বলিষ্ঠ গতিশীল নেতৃত্বে সম্প্রতি বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। দেশের এই মর্যাদা, উন্নয়ন-অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে সকলকে স্বীয় দায়িত্ব সততা ও দক্ষতার সাথে যথাযথভাবে পালন করার আহবান জানিয়ে তিনি আরো বলেন, দেশ পরিচালনার রয়েছেন বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা, যা আমাদের জন্যে গর্বের ও অহংকারের। স্বাধীনতা বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ ও মহত্তম অর্জন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে নয় মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা অর্জন করেছি স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধক গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইসমাইল হোসেন বলেন,১৯৭১ থেকে ২০২১। ৫০ বছরে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার প্রশংসা এখন সারা বিশ্বে। ১৯৭১ সালে বর্বর নিপীড়ন, জেনোসাইড হচ্ছে জেনেও যে দেশগুলো কার্যত নিশ্চুপ ছিল বা স্বাধীন বাংলাদেশকে যারা স্বীকার করতে চায়নি, সুবর্ণ জয়ন্তীর মাহেন্দ্রক্ষণে বাংলাদেশের তারিফ করেছে তারাও। জাতিসংঘের সদস্য পদ পাওয়ার প্রশ্নে ‘ভেটোর’ শিকার হওয়া বাংলাদেশ আজ জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা কার্যক্রমে অন্যতম শান্তিরক্ষী জোগানদাতা। বাংলাদেশের সাফল্য গর্বের সঙ্গে প্রচার করে জাতিসংঘও।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × five =