শোক সংবাদ

0
399
728×90 Banner

দ্বীন মোহাম্মদ মুন্না, শাহরাস্তি (চাঁদপুর): সবাইকে পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হবে। মৃত্যুর স্বাদ প্রত্যেককে উপভোগ করতে হবে একদিন। শায়িত হতে হবে মাটির বিছানায়। কারো কারো চলে যাওয়া বিষম কষ্ঠ আর হৃদয়বিদারক। তেমনই কষ্ঠ দিয়ে চলে গেলেন শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড বলশীদ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মহিলা মাদ্রাসা ও পাটওয়ারী বাড়ির হাজী মো. মোবারক হোসেন পাটওয়ারী(৭২)। গতকাল বুধবার রাত ১১.৩০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তিনি তিন ছেলে ও তিন মেয়েসহ অসংখ্যা গুনগ্রাহী রেখেছেন। তিনি দৈনিক মানবকন্ঠ ও আলোকিত চাঁদপুরের সাংবাদিক দ্বীন মোহাম্মদ মুন্নার জ্যেঠা হয়।
মরহুমের বড় ছেলে ইস্রাফিল মিন্টু ও পারিবার সূত্রে জানা যায়, তার শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখলে প্রথমে শাহরাস্তি সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যান। পরিক্ষা নিরিক্ষা করে জানতে পারেন তিনি ব্রেন স্টোক করেছেন। পরে চিকিৎসকরা তার কোন উন্নতি না দেখে কুমিল্লার ভালো কোন হাসপাতালে নিয়ে যেতে পরামর্শ দেন। সেখানে নিয়ে গিয়েও অবস্থার পরিবর্তন না দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেপার করে নিয়ে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কোন ভরসা দিতে পারেননি। এ অবস্থায় তাকে গাড়ি করে নিয়ে আসাকালে এ্যাম্বুলেন্সেই মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের মাতম বইছে।
তার নামাজে জানাজা গতকাল বৃহস্পতিবার বাদ জোহর শেখ ফজিলাতুন্নেছা মহিলা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে জানাজা পড়ান হাফেজ মো. মোস্তফা। পরে তার নিজ পারিবারিক কবরস্থানে শেষ সমাধি করা হয়েছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা ওলামা লীগের সভাপতি মাওলানা আমিনুল ইসলাম, টামটা উত্তর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক দিদার হোসেন পাওয়ারী, মাওলানা শহিদ উল্যাহ, হাজী আব্দুল মমিন পাটওয়ারী, ছালামত উল্যাহ, ইমাম হোসেন, মৃত মোবারক হোসেনের মেয়ের জামাতা মাস্টার আবুল খায়ের ও নাতি শ্রাবন, শুভ প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
728×90 Banner

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here